magazine_cover_12_june_17.jpg

Tolly Interview

‘‘যে ছবির কনটেন্ট স্ট্রং হবে, সেই ছবি দর্শকদের মন জয় করে নেবে’’

jeet4
‘বস ২’ -এর গল্প তাঁর নিজের লেখা। তাই নিয়ে বেশ উত্তেজিত তিনি। ছবির মিউজ়িক লঞ্চের ব্যস্ততার মধ্যেই কথা বললেন টলিউডের হার্টথ্রব নায়ক জিৎ। শুনলেন আসিফ সালাম

‘বস ২’-র গল্প তো আপনার লেখা?
হ্যাঁ। এই প্রথমবার আমার গল্প নিয়ে ছবি। আমি প্রার্থনা করি যাতে দর্শকের আমার গল্প ভাল লাগে। এইটুকু বলতে পারি, ‘বস ২’র কনটেন্ট ইজ় ভেরি স্ট্রং।

কিন্তু নিজের গল্প নিয়ে ছবি করার পিছনে কোনও বিশেষ কারণ?
বিশেষ কারণ কিছু নেই। আসলে ‘বস’ সাফল্য পাওয়ার পরেই আমরা ঘোষণা করেছিলাম যে এই ছবির সিকোয়েল করা হবে। আমার ফ্যানরা প্রায় সময়ই আমার কাছে ‘বস’-এর সিকোয়েলের জন্য আবদার জানাত। সিকোয়েলের জন্য আমি এমন একটা গল্প চেয়েছিলাম যেটা ঠিক ‘বস’ যেখানে শেষ হয়েছিল, সেখান থেকে শুরু হবে। বেশ অনেকদিন ভাবনাচিন্তার পর এই গল্পটা ডেভেলপ করে।

jeet-11

প্রেস মিটে বললেন এই ছবির ইউএসপি হল অ্যাকশন…
হ্যাঁ, আমি নিশ্চিত এরকম অ্যাকশন সিকোয়েন্স বাংলা ছবিতে আগে কখনও দেখা যায়নি। আমাদের ফাইট মাস্টার অ্যালেন আমিন অসামান্য কাজ করেছে। একটি গাড়ি চেজ় সিকোয়েন্সে আমি একটি দুর্ঘটনার কবলেও পড়েছিলাম। সকলেই ভেবেছিল যে, আমার জন্য হয়তো শুটিং কয়েকদিন পিছোতে হবে। কিন্তু সেটা হয়নি। ধন্যবাদ জানাই আমার সকল ফ্যানদের, যাদের জন্য আমি যে কোনও পরিস্থিতিতে, আরও ভাল কাজ করার অনুপ্রেরণা পাই। ব্যাংককে ‘বস ২’-এর শুটিংয়ে আমার সঙ্গে আমার মেয়ে নবন্যাও গিয়েছিল। ও-ও ভীষণ মজা করেছে। শুধু মাঝে একটু জ্বর চলে এসেছিল কারণ জলের মধ্যে অনেকক্ষণ লাফালাফি করেছিল!

জিৎ-শুভশ্রী জুটি কিন্তু টলিউডে জুটি হিসেবে সকলের মন জয় করে নিচ্ছে।
প্রপার নায়ক-নায়িকা অর্থে, ‘বস ’-এর পর এই ছবি আমার এবং শুভশ্রীর দ্বিতীয় ছবি। এত কম সময়ের মধ্যেই আমাদের জুটি জনপ্রিয়তা পাচ্ছে, সেটা জেনে খুব ভাল লাগে। আগেও বলেছি, আবার বলছি। শুভশ্রী ইজ় ভেরি ভেরি ট্যালেন্টেড অ্যান্ড আ হার্ড ওয়র্কিং গার্ল। আই উইশ হার অল দ্য বেস্ট।

jeet-10

ছবির মিউজ়িকও তো বেশ জনপ্রিয়তা পাচ্ছে…
হ্যাঁ, আমার কানেও সেরকম খবরই এসেছে। অল ক্রেডিট গোজ় টু জিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। আমার অনেকদিনের পুরনো বন্ধু এবং একজন অসামান্য শিল্পী। ‘বস ২’ ইজ় অ্যাবাউট ‘জিৎ ত্রায়াঙ্গেল’। জিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, চিরঞ্জিৎ এবং আমি জিৎ মদনানি!

‘বস ২’-এর সঙ্গে একইদিনে মুক্তি পাচ্ছে ‘টিউবলাইট’ এবং ‘চ্যাম্প ২’।
আই উইশ এভরিওয়ান অল দ্য ভেরি বেস্ট। সত্যি বলতে, ‘টিউবলাইট’-এর সঙ্গে আমাদের কোনও তুলনাই হয় না। ওদের স্কেল অনেক হাই। তবে আমার ছবি নিয়ে আমি খুবই কনফিডেন্ট। আমি বিশ্বাস করি, সব কিছু নির্ভর করছে কনটেন্টের উপর। যে ছবির কনটেন্ট স্ট্রং হবে, সেই ছবি দর্শকদের মন জয় করে নেবে। ২৩-শে জুন, সকলে মিলে হলে গিয়ে ‘বস ২’ দেখুন। আমার বিশ্বাস, আপনারা কেউ নিরাশ হবেন না।
jeet-1

Our Recent Interviews