magazine_cover_12_august_17.jpg

Music Interview

সম্প্রতি নিজের সঙ্গীত জীবনের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে নজরুল মঞ্চে শো করলেন অমিতকুমার। সঙ্গে পারফর্ম করলেন ভাই সুমিতকুমারও। সেখানেই সুমিতকুমারের সঙ্গে কথা বললেন স্বর্ণাভ দেব।

- – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – -

- – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – -

বাবার বিষয়ে কোনও ইন্টারেস্টিং তথ্য…

আমি তখন খুবই ছোট ছিলাম, ফলে আমার বাবা কে, অর্থাত্‌ কোন মাপের মানুষ ছিলেন সেটা উপলব্ধিই করতে পারিনি। আস্তে-আস্তে বেড়ে ওঠার সঙ্গে-সঙ্গে আমি বুঝতে পারলাম বাবা কে ছিলেন! এছাড়া মা, দাদা এঁদের  থেকেও জেনেছি বাবার সম্পর্কে।

 

বাবা মারা যাওয়ার দুঃখ কতটা অনুভব করেছিলেন?

আমি তখন খুবই ছোট ফলে এই অনুভূতিই আমাকে তখনও স্পর্শ করেনি। আমি দেখেছিলাম অনেক লোক এসেছে। ভেবেছিলাম কোনও ফাংশান আছে বুঝি! বাবাকে যখন নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তখন বুঝলাম একটা অন্য কোনও ব্যপার ঘটেছে। কারণ, সাধারণত উনি আমাদের সঙ্গে কথা বলতেন, মজা করতেন। ওঁকে এভাবে চুপ করে থাকতে দেখিনি।

 

এত ছোট বয়সেই বাবাকে হারিয়েছিলেন কোনও অনুভূতি শেয়ার করবে?

সেই সময় আমার প্রায় পাঁচ বছর বয়স। আমি তখন এতটাই ছোট যে আমার কোনও কিছু মনে নেই।

 

আপনার জীবনে অমিতজির (AMIT KUMAR) অবদান কতটা?

আমার জীবনে সবচেয়ে বেশি অবদান মা আর দাদার। আমার বেড়ে ওঠার পথে দাদার অবদান বিশাল। যখন বাবা বেঁচে ছিলেন ওঁরা টুরে যেতেন, আমি দাদার সঙ্গে খুব মজা করতাম। দাদা আমাকে পিঠে বসিয়ে নিয়ে ঘুরত। সেই সময়ের অধিকাংশ ফোটোগ্রাফও দাদার সঙ্গে।

 

দাদার সঙ্গে কোনও মজার ঘটনা?

‘এক চতুর নার’ গান হলেই বাবা নিজের অংশটুকু গানতেন, আর দাদা মান্নাজির (MANNA DEY) অংশটা গাইতেন। স্টেজে যখন তাঁদের যুগলবন্দি হত তখন আমি বাবার কোলের ওপর বসে পড়তাম। আমি বুঝতাম না যে, এটা স্টেজ! একবার বাবা স্টেজে গান গাইছিলেন আমি স্টেজে উঠে বাবার পা টেনে ধরেছিলাম।

 

এখন আপনি কী করছেন?

সেভাবে কিছুই না। বরং বলতে পারেন, আমি নিজের জীবনকে পুরোপুরি এনজয় করছি। মাঝে-মাঝে শো করি। তবে আমার ইচ্ছে আছে মিউজ়িক কম্পোজ় করার।

 

কিশোরকুমারের পুত্র হওয়ার জন্য ইন্ডাস্ট্রি থেকে কাজ করার প্রস্তাব আসে?

ঘরে বসে বসে তো কাজ আসে না। আর আমি নিজের ব্যাপারে খুব কনফিউজ়ড ছিলাম একটা সময়। আর আমি তো সেভাবে কারওর কাছে থেকে গানের তালিমও নিইনি। ফলে গানের প্রস্তাবও বিশেষ আসে না।

বলিউডে গান গাওয়ার কোনও ইচ্ছে আছে?

অবশ্যই! তবে আমি  নিজেকে ফোর্স করি না।

 

আপনার গানের শিক্ষক কে?

আমার বাবা ও ভাই আমার গানের গুরু। আমি তো আলাদা করে কারও কাছে শিখিনি। তবে কেউ প্রশংসা করলে মনে হয়, সেটা ভগবানের আশীর্বাদ।

 

আপনার কেরিয়ারের বিষয়ে আপনার মায়ের মতামত কী?

মা বলেন, তুমি যা পারো কর। বাড়ির দিক থেকে আমার ওপর কোনও চাপ নেই। এমন নয় যে, কোনও কাজ করতেই হবে।

 

পড়াশোনা?

আমি গ্র্যাজুয়েশন কমপ্লিট করেছি।

 

কিশোরজি মারা যাওয়ার পরে অন্যান্য সেলেবদের সঙ্গে সম্পর্ক কেমন?

খুব ভাল। আমি আলাদা করে কারও নাম নিতে চাই না।