magazine_cover_12_november_18.jpg

 

Home music news সিধু-পটা একসঙ্গে?

সিধু-পটা একসঙ্গে?

shidu-pota-big আনন্দলোক-এর হাত ধরেই ‘এক’ হয়ে ছিলেন তাঁরা। সাড়ে ছ’বছর পর একসঙ্গে আনন্দলোক-এর লাইভ প্ল্যাটফর্মে এসে গানে –আড্ডায় মাতিয়ে দিয়েছিলেন প্রায় পঁচাশি হাজার শ্রোতাকে। মানুষের ভালবাসার আবেগে প্লাবিত হয়ে সিধু এবং পটা জানিয়েছিলেন, দু’জনের আলাদা আলাদা ব্যান্ড থাকলেও, সঙ্গীতের স্বার্থে তাঁরা একসঙ্গে কাজ করতে পারেন। কোনও প্রোজেক্ট তাঁদের ভাল লাগলেই হবে। আনন্দলোক সেই আনন্দসফরের সঙ্গী ছিল। সেই লাইভ শেষ হয়ে যাওয়ার পরে আমাদের কাছে বহু অনুরোধ এসেছে। যাতে সিধু-পটা একসঙ্গে কোনও ব্যান্ডে কাজ করেন। কেন তাঁরা এক হচ্ছেন না, এ প্রশ্নও শুনতে হয়েছে বহুবার। তবে এটা মানতেই হবে, আনন্দলোক সেদিন একটা দরজা খুলে দিয়েছিল। গানে গানে বহু দূরত্ব ঘুচেছিল সেদিন। আর তার রেশ ধরে অনেকেই বিশ্বাস করতে শুরু করেছিলেন, অসাধ্যসাধন করা যায় তা হলে। তার পরে সিধু-পটা একসঙ্গে বেশ কিছু কাজ করেছেন। ‘উমা’ ছবিতে তাঁদের গাওয়া ‘এসো বন্ধু’ প্রশংসিত হয়েছে। একসঙ্গে বিভিন্ন চ্যানেলে দেখাও গিয়েছে তাঁদের। সেই ফ্যাক্টরগুলিকেই কি তা হলে অস্বীকার করতে পারলেন না সিধু এবং পটা? কারণ শোনা যাচ্ছে, ‘ক্যাকটাস’ এবং ‘পটা ও মরুদ্যান’ ব্যান্ড দু’টি অক্ষত থাকলেও, সিধু এবং পটা নাকি ঠিক করেছেন, এবার একসঙ্গে ব্যান্ডে কাজ করবেন। হ্যাঁ, সিধু এটা বলেছিলেন বটে যে, তাঁর যে-কোনও প্রোজেক্টের জন্য পটাকে তিনি ডেকে নিতে পারেন। কিন্তু খবর, কোনও প্রোজেক্ট নয়… পুরোদস্তুর ব্যান্ডই নাকি তৈরি করছেন তাঁরা। ‘ক্যাকটাস’, ‘পটা ও মরুদ্যান’-এর কাজ সমানতালে চলতে থাকবে। কিন্তু পাশাপাশি সিধু-পটাও নাকি নিজেদের একটা লাইনআপ তৈরি হবে! এমনটা হলে যে, বাংলার ব্যান্ড সঙ্গীতপ্রেমী মানুষ নতুন অক্সিজেন পাবেন, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তবে বিষয়টি পুরোটাই খবর। এই বিষয়ে সিধু বা পটা অফিশিয়ালি কিছুই জানাননি। দেখা যাক… যা-ই হোক, সর্বপ্রথম জানতে পারবেন আনন্দলোক-এই।