magazine_cover_12_august_19.jpg

Anandalok Review

দৃষ্টিনন্দন, স্মার্ট মেকিং, তবে…

কিডন্যাপ
kidnepp-still

পরিচালনা: রাজা চন্দ
অভিনয়: দেব, রুক্মিণী, চন্দন সেন

একজন পাব কর্মচারী, তিনি কিনা আন্ডারকভার এজেন্ট, দুবাইতে থাকে আবার পুলিশের বড়কর্তার নির্দেশে দুবাই যায়… দূর মশাই সব গুলিয়ে গেল তো? কিছু লজিক না হয় ছেড়েই দিন। সেটা বাদ দিয়ে ছবিটা কিন্তু মন্দ নয়। সারা দুনিয়া জুড়ে নারী পাচার সমস্যা বেড়েই চলেছে। মেঘনা (রুক্মিণী) একজন সাংবাদিক, নারী পাচারের উপর একটি স্টোরি করার জন্য দুবাই যায়, কিছু তথ্যও সে হাতে পায়। আলাপ হয় দেবের (দেব) সঙ্গে। দেব দুবাইয়ের এক পাবের কর্মচারী। কিন্তু নারী পাচারকারী দলের হাতে পড়ে যায় মেঘনা। দেব বাঁচায় তাঁকে। তারপর মেঘনা কলকাতা ফিরে আসে এবং বেপাত্তা হয়ে যায়। বাকিটা বলে দিলে সাসপেন্স নষ্ট।

দেবকে পরদায় দেখতে বড় ভাল লেগেছে। অভিনয়ও মন্দ নয়। রুক্মিণীও ভাল অভিনয় করেছেন। পরদায় তাঁর স্টাইলিশ উপস্থিতি ‘আয়েশা’ ছবির সোনম কপূরকে মনে করিয়ে দেয়। দেব-রুক্মিণীর পারস্পরিক বোঝাপড়া এই ছবিতে বাড়তি নম্বর যোগ করে। ছোট্ট চরিত্রে চন্দন সেন ভাল। গানগুলো ভাল হলেও কিছু-কিছু জায়গায় হঠাৎ গানের গুঁতো গল্পকে দিকভ্রষ্ট করে দেয়। তবে ঝকঝকে দৃশ্যপট এবং চমৎকার ক্যামেরার ব্যবহার ছবিটিকে সুন্দর করেছে। দেবের একাই একদল দুষ্টু মানুষকে মেরে পাট-পাট করে দেওয়া দৃশ্য অতিরঞ্জিত হলেও খারাপ লাগে না (বাঃ রে, টাইগার শ্রফ যখন মারেন, তখন তো কেউ কিচ্ছুটি বলেন না)। তবে ছবিটির দৈর্ঘ্য কমানো যেত। ফলে এক সময়ে টানটান ভাবটা আলগা হয়ে পড়ে। সবই ঠিক ছিল কিন্তু একজন পুলিশ অফিসার হয়েও থানায় ঢুকে পুলিশকে মারাটা… ওই আবার লজিক খুঁজছেন তো!

এখন আপনার রিভিউ প্রকাশিত হতে পারে আনন্দলোক-এ। সিনেমা দেখে
চটপট লিখে ফেলুন রিভিউ আর ইমেল করুন

[email protected]