magazine_cover_12_april_18.jpg

Anandalok Review

  • x

    আ পলিটিক্যাল মার্ডার

    দিল্লি গণধর্ষণ ঘটনাকে ব্যাকড্রপে রেখে, কিছু অসাধু রাজনৈতিক নেতাদের কলেজ ইউনিয়ন দখলের নোংরা চক্রান্ত নিয়েই মূলত এই ছবি। ছবির গল্প ঘিরে রয়েছে দুটি প্রধাণ চরিত্র। কলেজের প্রোফেসর এবং সেই কলেজের স্টুডেন্ট ইউনিয়নের জনপ্রিয় এক লিডার। পুরো ছবি জুড়েই এক চাপা টেনশনের স্রোত বইতে থাকে। তবে ছবির ক্লাইম্যাক্সে এসে সব যেন কেমন জট পাকিয়ে যায়। পরিচালক অগ্নিদেব চট্টোপাধ্যায়ের সুনাম রয়েছে টলিউডে সবচেয়ে তাড়াতাড়ি ছবি তৈরি করার। ক্লাইম্যাক্সে এসে তিনি বোধহয় একটু বেশিই তাড়াতাড়ি ছবিটি শেষ করার প্রয়াস করেছিলেন।

    More
  • x

    কেয়ার অফ স্যার

    টলিউডের এই মুহুর্তের অন্যতম প্রতিভাবান পরিচালক, টলিউডের এই সময়ের অন্যতম সেরা অভিনেতা, দুর্দান্ত প্লট, নয়নাভিরাম লোকেশন…বলতে গেলে, ‘কেয়ার অফ স্যার’-এর প্রতি আকর্ষণ বাড়ার সমস্ত রসদই ছিল। ছবি শুরুও হল সেই ‘আকর্ষণ’-কে কয়েকগুণ বাড়িয়ে। কিন্তু শেষরক্ষা হল কি? সেটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন এবং উত্তরে বলতে বাধা নেই, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের এই ছবি এখানেই পিছিয়ে পড়ে। ‘শব্দ’-র সাফল্যের পর আবার কৌশিক দর্শকদের সামনে। এবা অন্ধ শিক্ষক জয়ব্রত রে কে নিয়ে, যিনি নিজের স্কুল এবং জমিকে বিক্রি হয়ে যাওয়ার হাত থেকে বাঁচাতে চান।

    More
  • x

    খোকা ৪২০

    পয়সা উশুল ছবির সব মশলাই আছে খোকা ৪২০-এ। এই ছবিই আর একবার প্রমাণ করল, নাচ ও অ্যাকশনে দেবকে টেক্কা দেওয়া এখনও বেশ শক্ত। ছবি শুরুই হচ্ছে দুর্দান্ত অ্যাকশন দিয়ে। যেখানে কৃষ (দেব) এক প্রেমিককে সাহায্য করছে তার প্রেমিকাকে পেতে। কৃষের এক ঘুষিতে কুপোকাত একটির পর একটি গুন্ডা। অবশ্য শুধু দমনে নয়, রোমান্সেও সে ভগবান কৃষ্ণের চেয়ে কম কিছু নয়।বড়লোকের একমাত্র সন্তান কৃষের প্রেমিকা মেঘা (নুসরত)।  এদিকে মেঘা তার বান্ধবী ভূমিকে , কৃষকে রাজি করায় ভূমির প্রেমিক সাজতে।

    More