magazine_cover_27_june_17.jpg

Tolly Interview

আপনারা তো কখনও বলবেন না আমাদের কাজ পাওয়া উচিত!

চট করে তাঁকে পরদায় দেখা যায় না। কেন? বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়কে জিজ্ঞাসা করলেন ধৃতিমান গঙ্গোপাধ্যায়

 
অনেকদিন পরে ‘মণিহারা’তে আপনাকে পরদায় দেখা যাবে…
মাঝে কিছু ছবিতে কাজ করেছি। তবে শরীরটা ভাল ছিল না বলে গত কয়েকমাস কাজ একদম বন্ধ রেখেছিলাম। তাই অত বেশি করে কাজ করা হয়নি। আর ‘মণিহারা’র কথা বলি, এই ছবিতে একটা নিটোল গল্প আছে। কোনও মারদাঙ্গা, টার্মিনেটরের মতো কায়দাবাজি নেই। গল্প-টল্প তো আজকাল বেশ বিরল। তাছাড়া গল্পটা একদম আলাদাও বটে। সেটাই আমাকে আকৃষ্ট করেছে। অর্ঘ্যদীপের মতো কমবয়সি ছেলেদের (ছবির প্রযোজক অর্ঘ্যদীপ চট্টোপাধ্যায়) প্যাশনটাও কিন্তু দেখার মতো!
 
আপনার চরিত্রটা কীরকম?
যে বাড়ি ঘিরে ছবির ‘রহস্য’, সেই বাড়ির মালিকের চরিত্রটা আমি করেছি। বেশ খিটখিটে এক বুড়ো!
 
মঞ্চে কোনও কাজ করছেন?
একটা নতুন নাটকের রিহার্সাল দিচ্ছি। সেটা মঞ্চস্থ হতে একটু দেরি আছে।
 
আর সিনেমা?
অগস্ট থেকে আবার শুটিং শুরু করব। প্রবীর রায়ের একটা ছবি আছে। এছাড়াও একটা আছে…তবে আমি আর খুব একটা বেশি ছবি করতে পারব না। বলা ভাল, করব না!
 
শারীরিক কারণে?
না না, ওই মারদাঙ্গা হ্যানত্যান মার্কা সিনেমা আর ভাল লাগে না। নিটোল গল্প না হলে কাজ করা খুব মুশকিল হয়ে পড়ছে। সারা জীবন লোকে দেখেছে, পরদায় আমি চুরি, রাহাজানি, বাটপারি, ধর্ষণ, খুন করছি। সেই বয়সটা বোধহয় পেরিয়ে এসেছি…তবে এই বয়সেও কিন্তু নেগেটিভ চরিত্র করা যায়, যদি সেইভাবে গল্পটা কেউ সাজাতে পারে। একটা ইংরেজি ছবি ছিল, ‘ব্লো হট ব্লো কোল্ড’। সেইরকম ছবি এখানে কে করবে?
 
তাহলে সামনে এগনোর উপায় কী? আমূল পরিবর্তন?
(হেসে) ‘পরিবর্তন’-এর ফলে চারদিকের যা অবস্থা হয়েছে…তাই বেশি পরিবর্তনের কথা বলব না। তবে বাংলা ছবির ক্ষেত্রে গল্পের খুব দরকার। ভাল গল্প হবে, সেখানে ভাল অভিনয় হবে। নাহলে কী লাভ? এই যে এত ‘বড়-বড়’ সব ছবি বেরোল। ‘চাঁদের পাহাড়’! রেজ়াল্টটা কী? প্রযোজকরা হয়তো টাকা ঘরে তুলে নিল! কিন্তু ইন্ডাস্ট্রির লাভটা কী হল? এই যে জিজ্ঞাসা করছেন, আমিও ফটফট বলে চলেছি, এরপর আর একটা কাজও পাব না। আপনারা তো বলবেন না, যে এই লোকগুলির কাজ পাওয়া উচিত! আমার অন্তত মনে হয় আমি নিজেকে যথেষ্ট প্রমাণ করেছি। বিভিন্ন ধরনের চরিত্রে দীর্ঘদিন ধরে ঠিকভাবে অভিনয় করেছি বলেই মনে হয়। কিন্তু পরদায় তো সেই একই লোক, একই ধরনের চরিত্র দিনের পর দিন করে যাচ্ছে…সরি ভাই, হয়তো একটু বেশিই উত্তেজিত হয়ে পড়লাম! সরি!