Category Archives: tolly news details

সুজয়ের পরিচালনায় যিশু…

sujay-jishu-big দু’জনের কারওই এখন ব্যস্ততার সীমা নেই। সুজয় ঘোষ যদি একদিকে ‘বদলা’ নিয়ে ঘুমনোর সময় না পান, তা হলে অন্যদিকে যিশু সেনগুপ্তও বাংলা, হিন্দি এবং দক্ষিণী গোটা দেশ ঘুরে বে়ড়াচ্ছেন। কিন্তু তা-ও তো মনে ইচ্ছে জাগে, যদি এই পরিচালক-অভিনেতাকে একসঙ্গে কাজ করতে দেখা যেত! যা-ই হোক, এবার সেই সাধ পূরণ হতে চলেছে। তবে বড় পরদায় নয়। আসলে সুজয় ‘টাইপরাইটার’ নামে একটি পাঁচ এপিসোডের থ্রিলার তৈরি করতে চলেছেন নেটফ্লিক্স-এ। সেখানেই কাস্ট করেছেন যিশুকে। যিশুও এরকম একটি ইন্টারেস্টিং চরিত্র পেয়ে খুবই উৎসাহিত। ফলে নিজের ব্যস্ত শেডিউডের মধ্যেও গোয়ায় গিয়ে শুট করে ফেলেছেন। বিস্তারিত খবর আসছে আনন্দলোক-এর পাতায়।

সায়ক বসু

সায়ন্তিকার ব্যাগ প্রেম!

SAYANTIKA-bigএই বস্তুটা নিয়ে আহ্লাদের শেষ নেই সায়ন্তিকার। ব্যাগ দেখলেই কেমন যেন পাগল হয়ে যান তিনি। পৃথিবীর যেখানেই গিয়েছে এক না, একাধিক ব্যাগ কিনে ফিরেছেন। তা সে লন্ডন হোক কী দুবাই, সুটকেসের মধ্যে নতুন ব্যাগ সযত্নে কেনা থাকবেই। নায়িকা নিজেই জানালেন তাঁর কালেকশনে ২০টি ব্যাগ তো আছেই, সেই সংখ্যাটা আরও বাড়তে চলেছে। জিমি চু থেকে শ্যানেল, কোন ব্র্যান্ড নেই সেই তালিকায়। তবে কোন ব্যাগটা সবচেয়ে দামি বা প্রিয়? ‘‘না দামের দিক থেকে কখনও ভাবিইনি। সবক’টাই আমার প্রিয়। এবং একটির ক্ষতি হয়ে গেলে আমি আকাশ-পাতাল এক করে দেব। আসলে প্রতিটি ব্যাগই ভীষণ শখ করে কেনা।’’

SAYANTIKA | CHANEL | BAG.

সোহম-শ্রাবন্তী-ওমের কমেডি

soham-oh-big0 কে নেই ছবিতে… সোহম, শ্রাবন্তী, ওম, দর্শনা, বিশ্বনাথ বসু, কাঞ্চন মল্লিক, শুভাশিস মুখোপাধ্যায়… কিন্তু ভাববেন না, নতুন ছবিতে কোনও ত্রিকোণ প্রেমের অ্যাঙ্গেল রাখতে চলেছেন পরিচালক অভিমন্যূ মুখোপাধ্যায়। প্রেম আছে। তবে নিপাট মিষ্টি প্রেম। আসলে এই বঙ্গে পুরোদস্তুর হাসির সিনেমা খুব একটা হয় না তো! তাই অভিমন্যূ চেষ্টা করছেন তাঁর এই ছবিতে কমেডির ধারাটিকে নিয়ে কাজ করতে। বলেছেন, এই ছবিতে ভাবনাচিন্তা করার কিছু নেই। দর্শক আসবেন, প্রবল হাসবেন, মজা করবেন, বাড়ি চলে যাবেন। কোনও প্যাঁচ পয়জার থাকবে না ছবিতে। আজই এসকে মুভিজ়ের ব্যানারে হয়ে গেল ছবির শুভ মহরত। কয়েক দিনের মধ্যেই শুরু হবে ছবির শুটিং…

রাজা চন্দের হিন্দি ছবি?

raja-chanda-big বিশ্বস্ত সূত্রের খবর, নিজের কেরিয়ারের প্রথম হিন্দি ছবি পরিচালনা করতে চলেছেন রাজা চন্দ। আপাতত সুরিন্দর ফিল্মস-এর নতুন ছবির কাজ নিয়ে ব্যস্ত রাজা। এই ছবিতে রয়েছেন দেব ও রুক্মিণী। শোনা যাচ্ছে, এরপরেই হিন্দি ছবির কাজে হাতে দেবেন রাজা। ছবিটি প্রযোজনাও করেছেন তিনিই। রাজার ইচ্ছে, সুজিত সরকারে প্রিয় স্ক্রিপ্টরাইটার জুহি চতুর্বেদীকে দিয়ে গল্পটি লেখাবেন। কমেডি জঁরের এই ছবিতে রাজার ইচ্ছে, কাস্ট করবেন বোমান ইরানি ও রত্না পাঠককে। ইনিশিয়ালি বোমান ও রত্নার সঙ্গে নাকি কথাও এগিয়েছে রাজার। সামনের বছর জানুয়ারি থেকে ছবির কাজ শুরু হওয়ার কথা।

আসিফ সালাম

Raja Chanda | Hindi Film

‘সুভাষিণী’ হচ্ছেন রুক্মিণী?

rukmini-big অনেকদিন ধরেই জল্পনা-কল্পনা চলছিল যে, পদ্মশ্রী সুভাষিণী মিস্ত্রিকে নিয়ে দেব যে ছবিটি করতে চলেছেন, সেখানে ‘সুভাষিণী’র চরিত্রে কোন নায়িকা অভিনয় করবেন! বেশ কিছু নাম হাওয়ায় উড়তে থাকে। সূত্রের খবর, ইন্ডাস্ট্রির একাধিক নায়িকার অডিশনও নেওয়া হয় চরিত্রটির জন্য। কিন্তু প্রযোজক দেব ও এই ছবির পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায়ের কোনও নায়িকাকেই নাকি ‘সুভাষিণী’ রূপে পছন্দ হচ্ছিল না। এদিকে নায়িকা পাওয়া যাচ্ছে না বলে ছবির কাজও শুরু করা যাচ্ছিল না। অবশেষে মিটিংয়ে বসেন দেব-অনিকেত। বিশ্বস্ত সূত্রের খবর, এই মিটিংয়েই নাকি সিদ্ধান্ত হয়, ‘সুভাষিণী’র চরিত্রে রুক্মিণী মৈত্রকেই কাস্ট করা হবে। ছবিতে রুক্মিণীর জন্য প্রস্থেটিক মেকআপের সাহায্য নেওয়া হবে। এর আগে এই ছবির প্রচারমূলক অনুষ্ঠানে দেব স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, ‘সুভাষিণী’র চরিত্রের জন্য রুক্মিণীকে একেবারেই ভাবা হচ্ছে না। তা হলে কী এমন ঘটল যে, রুক্মিণীকে কাস্ট করলেন দেব? নিন্দুকেরা আবার বলছেন, কোনও এক ‘অদৃশ্য শক্তির কোপ’-এ পড়ে ইন্ডাস্ট্রির কোনও এ-গ্রেড নায়িকা নাকি সাহস পাচ্ছেন না দেবের প্রোডাকশনে কাজ করতে! ঠিক যেমনটা হয়েছিল ‘হইচই আনলিমিটেড’-এর সময়ও! সে যাই হোক, শোনা যাচ্ছে, সামনের বছর জানুয়ারী থেকেই নাকি শুরু হবে ছবির শুটিং। আপাতত রেকি করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন অনিকেত।

Rukmini maitra | Dev | Subhashini | Rukmini maitra to play subhashini

‘জোজো’র সঙ্গে কচিকাঁচারা

jojo-big শীতকাল মানেই ক্রিসমাস, কেক খাওয়া, সান্তা ক্লজ়ের উপহার আর ঘুরতে যাওয়া। এবারের শীতে সেই আনন্দের মাত্রাকে আরও একটু বাড়িয়ে দিতে পরিচালক রাজ চক্রবর্তী এবং এসভিএফ ছোটদের জন্য নিয়ে আসতে চলেছেন ‘অ্যাডভেঞ্চারস অফ জোজো’। যেহেতু এটি ছোটদের সিনেমা, তাই প্রযোজক সংস্থার তরফ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল সিনেমার সঙ্গে ছোটদেরও যুক্ত করে নেওয়ার। সেই উদ্যোগের অংশ হিসেবেই কলকাতার বিভিন্ন স্কুল এবং স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার তৎপরতায় দক্ষিণ কলকাতার এক স্টেডিয়ামে জড়ো করা হয়েছিল প্রায় ৪০০ জন বাচ্চাকে। jojo-big2 নানা হাসি মজার মধ্যেই তাদের দিয়ে বানানো হয় ‘অ্যাডভেঞ্চারস অফ জোজো’ সিনেমার লোগো। প্রপস হিসেবে ব্যবহার করা হয় লাল ছাতা। বাচ্চাদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য পরিচালক রাজ চক্রবর্তীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সিনেমার দুই খুদে অভিনেতা নবাগত যশোজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সামিউল আলম, রুদ্রনীল ঘোষ, পদ্মনাভ দাশগুপ্ত সহ আরও অনেকে। ছবির সঙ্গে যুক্ত কলাকুশলীদের মতে, আপাতদৃষ্টিতে ‘অ্যাডভেঞ্চারস অফ জোজো’-কে বাচ্চাদের ছবি মনে হলেও, এই ছবিতে কিন্তু বড়দের জন্যও কিছু বার্তা রয়েছে। কাজেই এই শীতে ‘জোজো’ ছোটদের পাশাপাশি বড়দের মনকেও নাড়া দিতে পারে কি না, সেটাই এখন দেখার…

Raj Chakraborty | Adventures of Jojo

নতুন বিষয়, দর্শক তৈরি তো?

Purba-Pashchim-big তারাপীঠ, কালী এবং সেই সঙ্গে তন্ত্রসাধনা— বাঙালি সংস্কৃতির সঙ্গে ওতোপ্রতোভাবে জড়িয়ে রয়েছে এগুলি। প্রাচীনযুগে বাংলাকে তন্ত্রসাধনার কেন্দ্র হিসেবে মনে করতেন অনেকেই। সাধারণ মানুষের কাছে তন্ত্রসাধনার দিকগুলি কিন্তু এখনও অন্ধকারেই থেকে গিয়েছে। এবার সেই বিষয়টাকেই যুক্তিগ্রাহ্য করে পরদায় তুলে ধরবেন পরিচালক রাজর্ষি দে। তাঁর ছবির নাম ‘পূর্ব পশ্চিম দক্ষিণ (উত্তর আসবেই)’। লেখক অভীক সরকারের বেস্ট-সেলিং বই ‘এবং ইনকুইজ়িশন’-এর তিনটি গল্প অবলম্বনে তৈরি এই ছবিতে দেখানো হবে প্যারানর্মাল, আধিদৈবিক ও আধিভৌতিক হরেকরকমের জিনিস। মানুষের নানা অন্ধ বিশ্বাস, কালো জাদু, এমনকি পুনর্জন্মের বিষগুলোও রয়েছে রাজর্ষির এই ছবিতে। চৈতন্যদেবের সমসাময়িক কৃষ্ণানন্দ আগমবাগীশের মতো ঐতিহাসিক চরিত্রকে নিয়ে সিনেমাও নাকি বাংলাতে এই প্রথম হচ্ছে। ছবির শুটিং শুরু হবে কয়েকদিনের মধ্যেই। তবে তার আগে হয়ে গেল এই ছবির মহরত অনুষ্ঠান। এতদিন অবধি এই জাতীয় অনুষ্ঠান শপিং মল কিংবা পাঁচতারা হোটেলেই হতে দেখে এসেছে সকলে। তবে ‘পূর্ব পশ্চিম দক্ষিণ (উত্তর আসবেই)’ ছবিটির মহরত অনুষ্ঠান হল ডাকাত কালী বাড়িতে, মন্দিরের ভিতরে! ছবির গল্পের বিষয়বস্তুর সঙ্গে তাল মিলিয়েই যে এমন ভাবনার অবতারণা, তা জানালেন স্বয়ং এই ছবির অন্যতম প্রধান অভিনেতা ও প্রযোজক সুচন্দ্রা ভানিয়া। পরিচালক রাজর্ষির বক্তব্য, বাংলায় এরকম কাজ এই প্রথম। ভারতবর্ষের সেরা প্রযুক্তির টিম কাজ করছে তাঁর এই ছবির জন্য, ফলে ছবির সাফল্য নিয়ে যথেষ্ট আশাবাদী তিনি। ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করছেন পরান বন্দ্যোপাধ্যায়, কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়, অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়, রাজেশ শর্মা, গৌরব চক্রবর্তী, আরিয়ান ভৌমিক, সুচন্দ্রা ভানিয়া, বিদিপ্তা চক্রবর্তী, পদ্মনাভ দাশগুপ্ত, সত্রাজিৎ সরকার, কৌশিক কর, মালবিকা সেন, প্রমুখ। দীর্ঘদিন পরে বড়পরদায় ফিরতে চলেছেন নাট্যাভিনেতা রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত। মানবী বন্দ্যোপাধ্যায়ও অভিনয় করছেন একটি চরিত্রে। পুরুলিয়ার রঘুনাথপুরের নীলডি পাহাড় ছাড়াও কলকাতার কিছু-কিছু জায়গায় এই ছবির শুটিং হবে।

ইন্দ্রাণী ঘোষ

Purbo Paschim Dakkhin (Uttor Ashbei) | Rajarshi De | Paran Bandyopadhyay | Rudraprasad sengupta | Rajesh Sharma | bengali movie

দুবাইয়ে এক টুকরো বাংলা…

dubai-tolyhood-bigহঠাৎ-ই বাংলা ছবির এক ঝাঁক সদস্য হাজির হয়ে গিয়েছেন দুবাইয়ে। কেউ গিয়েছেন কাজে, কেউ বা ঘুরতে। যেমন, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, শ্রাবন্তী, অঙ্কুশ-ঐন্দ্রিলা গিয়েছেন একটি অনুষ্ঠানে (তবে দুবাই ঘুরতে কসুর করছেন না কেউই)। আবির চট্টোপাধ্যায় আর পাওলি দাম গিয়েছেন ছবি ‘তৃতীয় অধ্যায়’-এর স্ক্রিনিংয়ে। আর বনি এবং কৌশানী গিয়েছেন ছুটি কাটাতে। সব মিলিয়ে জমজমাট দুবাই।

PRASENJIT CHATTERJEE | ABIR | PAOLI | ANKUSH | DUBAI.

নতুন বাংলা ছবি

New-Bengali-film-sohom-big শ্যামসুন্দর দে’র প্রযোজনায় শুরু হতে চলেছে নতুন বাংলা ছবির কাজ। ছবির নাম ‘থাই কারি’। সূত্রের খবর, কমেডি ঘরানার এই ছবিতে অভিনয় করছেন সোহম, হিরণ, তনুশ্রী, রুদ্রনীল, তৃণা, পল্লবী চট্টোপাধ্যায়, অভিজিৎ গুহ সহ প্রমুখ শিল্পীরা। পরিচালনায় রয়েছেন অঙ্কিত আদিত্য। ছবির একাংশের শুট থাইল্যান্ডে হবে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই শুটিং শুরু হওয়ার কথা।

আসিফ সালাম

ট্রিলজির পর কি টেট্রালজি?

koushik-abir-jaya-big দুর্গাপুজোর বিসর্জনের পরেই আসে বিজয়ার পালা। সেই প্রথা মেনেই ২০১৭ সালে ‘বিসর্জন’-এর পর আগামী বছরের শুরুতেই আসতে চলেছে বিসর্জনের সিক্যুয়েল ‘বিজয়া’। সম্প্রতি দক্ষিণ কলকাতার এক অভিজাত শপিং মলে সিনেমার পোস্টার লঞ্চ অনুষ্ঠানে ছবির পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, অভিনেতা আবির চট্টোপাধ্যায়, অভিনেত্রী জয়া এহসানের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন খ্যাতনামা পরিচালক গৌতম ঘোষ। চিরাচরিত প্রথা অনুযায়ী একটা পোস্টার উদ্বোধন না করে একসঙ্গে প্রকাশ করা হল দুটো পোস্টার। পরিচালকের কথা থেকে জানা গেল, গল্পের প্রধান চরিত্র নাসির আলি (আবির) এই সিনেমায় কলকাতায় এসেছেন। পরিচালকের বক্তব্য, ‘বিজয়া’তেই কিন্তু এই সিরিজ়ের গল্প বলা শেষ হয়ে যায়নি। ‘বিসর্জন’-এর আগে এবং ‘বিজয়া’-র পরেও রয়েছে গল্প। দর্শক যদি ‘বিজয়া’কে সাগ্রহে গ্রহণ করেন, তাহলে অদূর ভবিষ্যতে সংলগ্ন আরও দুটো গল্প উপহার দিতে পারেন তিনি। সেক্ষেত্রে, ডুয়োলজি বা ট্রিলজির গণ্ডি পেরিয়ে পাওয়া যেতে পারে একটি টেট্রালজি। তবে সবটাই নির্ভর করছে দর্শক ‘বিজয়া’কে কী ভাবে গ্রহণ করছেন, তার উপর।

Bengali film | Bijoya | Kaushik Ganguly | Abir Chatterjee | Joya Ahsan