Category Archives: tolly news details

নেই শুভঙ্কর

Shweta-bhattacharya-subhankar-saha-big ‘জড়োয়ার ঝুমকো’ শেষ হতে চলেছে। তবে নায়িকা শ্বেতা ভট্টাচার্যর তাতে ছুটি নেই। তিনি নাকি খুব শিগগিরই আর একটি সিরিয়ালের কাজ শুরু করতে চলেছেন। তবে সেটা খবর নয়। খবর এই, এবার সম্ভবত শ্বেতার বিপরীতে শুভঙ্কর সাহাকে লিড করতে দেখা যাবে না। ছোট পরদায় শ্বেতা আর শুভঙ্করের জুটি কতটা জনপ্রিয়, তা সবাই-ই জানি। পরপর দু’টি জনপ্রিয় সিরিয়ালে লিড করে তাঁরা অনেকের কাছেই ‘স্বামী-স্ত্রী’তে পরিণত হয়েছিলেন। সেসব গল্প তো পুজোসংখ্যায় আমরা বলেইছি। সেদিক থেকে এটা একটা নতুনত্ব তো বটেই, তাই না?

Shweta Bhattacharya | Shubhankar Saha

‘মাস্ক’-এর পিছনে?

nusrat-sakib-sayantika-big সদ্য-সদ্য তাইল্যান্ড থেকে ফিরলেন নুসরত জাহান এবং সায়ন্তিকা। তা দুই বন্ধু কি ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন? আ়জ্ঞে না। নুতন ছবির শুটিংয়ে গিয়েছিলেন তাঁরা। রাজীব পরিচালিত নতুন ছবি ‘মাস্ক’-এক কাজ করছেন দুই নায়িকা। নায়ক সাকিব খান। তাইল্যান্ড আর কলকাতায় এই ছবির শুটিং হচ্ছে। সেই সূত্রেই পাটায়ায় গিয়েছিলেন গানের শুটে। প্রসঙ্গত পশ্চিমবঙ্গসহ বাংলাদেশে এই ছবিটি দেখানো হবে। এই ছবি দিয়ে বাংলাদেশে প্রথমবার পা রাখলেন নুসরত জাহান।

SAKIB KHAN | NUSRAT JAHAN | SAYANTIKA | MASK

‘ভজগোবিন্দ’র হিন্দি রিমেক?

bhojo-big বাংলা টেলিভিশন জগতে ‘ব্লুজ় প্রোডাকশন’ একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় নাম। কানাঘুষোয় শোনা যাচ্ছে, এবার তারা নাকি একটি হিন্দি সিরিয়াল প্রোডিউস করতে চলেছে। আরও শোনা যাচ্ছে যে, এটি নাকি বাংলা জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ভজগোবিন্দ’র হিন্দি রিমেক হতে চলেছে। একটি সর্বভারতীয় বিনোদন চ্যানেলে সিরিয়ালটি টেলিকাস্ট করা হবে। মুখ্য ভূমিকায় অভিনয়ের জন্য মুম্বইয়ের শিল্পীদের কথা ভাবা হলেও, এখান থেকে ইন্দ্রাশিস, রূপাঞ্জনার মতো শিল্পীদেরও নাকি এই সিরিয়ালে অভিনয় করতে দেখা যাবে। যদিও এখনও অবধি পুরো ঘটনাটাই শোনা যাচ্ছে এবং কোনও কনফরমেশন পাওয়া যায়নি।

BHOJOGOBINDO | BENGALI SERIAL BHOJOGOBINDO | HINDI SERIAL

আসিফ সালাম

অভিনব প্রচার!

Prriyam-Chakraborty-big এই পুজোসংখ্যাতেই আনন্দলোক লিখেছিল বলিউডে প্রচারের অভিনব সব কৌশলের কথা। তা সে দৌড়ে টলিউটডও ঢুকে গিয়েছে কবেই। এখন তার আঁচ ছোট পরদাতেও! গল্পটা খুলে বলি। দিনকয়েক আগে, একটি ফেসবুক লাইভ দেখা যায়। ‘মেমবউ’ খ্যাত প্রিয়ম চক্রবর্তী করছিলেন সেই লাইভটি। প্রচণ্ড ডিস্টার্বড, প্রচণ্ড কান্নাকাটি এবং কারও প্রতি ‘ভুল করার অধিকার, সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার’ ইত্যাদি নিয়ে অনেক কথা। স্বাভাবিক ভাবেই মনে হয়, শুটিং ফ্লোরে কিছু সমস্যা হয়েছে। এমনকী, ফ্লোরে অনেকের উদ্দেশে চিৎকার-চেঁচামেচিও করছেন তিনি। অনুসন্ধানের পরে জানা যায়, চিন্তার কিছুই নেই। আদতে প্রিয়ম দুর্দান্ত অভিনয় করছিলেন! কান্নাকাটি, আবেগ নিয়ে খেলা… সবই নকল! ‘ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড’ বলে একটি ওয়েব-ফিল্মে অভিনয় করেছেন প্রিয়ম। তারই প্রচার করা হচ্ছিল ওই লাইভে! ইউ গট আস দেয়ার! যদিও একটা প্রশ্ন থেকেই যায়। বাস্তব, ব্যবসা ও আবেগের লাইনগুলি এভাবে মুছে দেওয়া কি মানুষের বিশ্বাসের প্রতিও একটা আঘাত নয়?

Prriyam Chakraborty | Facebook Live

শাশ্বতর মুখস্থবিদ্যা

saswata-chatterjee-big বর্তমানে একটি নতুন হিন্দি ছবির স্ক্রিপ্ট নিয়ে ব্যস্ত শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়। শোনা যাচ্ছে, ‘জগ্গা জাসুস’-এর পর এই ছবিটিও নাকি বেশ বড় বাজেটের এবং বলিউডের একটি বড় প্রোডাকশন হাউজ় ছবিটির সঙ্গে যুক্ত আছে। তবে শাশ্বতর প্রায়োরিটি লিস্টে প্রথমেই আসে ছবির কনটেন্ট। তাই স্ক্রিপ্ট পড়ে কনভিন্স হলে তবেই ছবিটি করবেন তিনি। এর মাঝে এক অনুষ্ঠানে এসে শাশ্বত আনন্দলোক-কে জানান, বয়সের সঙ্গে-সঙ্গে মানুষের স্মৃতি-শক্তি কমলেও, তাঁর ক্ষেত্রে ঠিক উলটোটা হচ্ছে। আর তার কারণ, মোবাইল ফোন ব্যবহার না করা। শাশ্বত জানান, ‘‘অনেকেই মনে করেন মোবাইল ব্যাবহার না করে একটা দিনও চলা যায় না। আমি কিন্তু দিব্যি আছি। এই ধরুন আমি এখন এখানে এসেছি। ভাড়ার গাড়িতে। গাড়ির নম্বর মুখস্থ আছে। ড্রাইভারের নাম মনে আছে। অনুষ্ঠানের শেষে হোটেলের ভ্যালেতে গিয়ে গাড়ির নম্বর এবং ড্রাইভারের নাম বলব, গাড়ি চলে আসবে। মোবাইল থাকলে কিন্তু আমি এভাবে আমার ব্রেন ব্যবহার করতে পারতাম না। মোবাইল ব্যবহার না করে আমার স্মৃতিশক্তি কিন্তু আরও ভাল হচ্ছে।’’

Saswata chatterjee | saswata hindi film | Bengali actor saswata chatterjee

‘ভাওয়াল সন্ন্যাসী’র চরিত্রে?

jissu-and-srijit-big ‘উমা’র শুট শেষ হয়ে গিয়েছে কয়েকদিন হল, এরই মধ্যে সৃজিত মুখোপাধ্যায় শুরু করে দিয়েছেন তাঁর পরের ছবির প্রি-প্রোডাকশনের কাজ। ভাওয়াল সন্ন্যাসী। সৃজিতের এই পিরিয়ড পিস নিয়ে বেশ উত্তেজনা টলিউডে। কারণ বেশ রিসার্চ করেই এই কোর্টরুম ড্রামা তৈরি করেছেন সৃজিত। প্রথমে মনে করা হয়েছিল, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কেই রাজার চরিত্রে কাস্ট করবেন সৃজিত। কিন্তু পরে ঘনিষ্ঠমহলে সৃজিত বলেন, মূল রাজা রামেন্দ্র নারায়ণ রায়কে দেখতে খুবই সাধারণ ছিল। ফলে সেখানে বুম্বাদার মাপের কোনও বড় স্টারকে কাস্ট করলে বিশ্বাসযোগ্য মনে না-ও হতে পারে। নতুন কাউকে নেবেন বলেও খবর রটেছিল। যাই হোক, এখন যা খবর, তাতে ‘ভাওয়াল সন্ন্যাসী’র চরিত্রে নাকি যিশু সেনগুপ্তকে কাস্ট করে ফেলেছেন পরিচালক। যদিও অফিশিয়ালি কিছুই জানাননি, কিন্তু মনে হচ্ছে, নিজের পয়া ফ্যাক্টর যিশুর উপরেই বাজি ধরতে চলেছেন তিনি। কারণ যিশুর মধ্যে সেই ক্রুর এবং শান্ত-স্থিতধী ব্যাপারের একটা মিশেল আছে। জানুয়ারি মাস থেকে ছবির শুটিং শুরু। যাই হোক, আমরা যেটুকু খবর পেয়েছি, আপনাদের দিয়ে দিলাম। বাকিটা সৃজিত খোলসা করলেই বলতে পারব।

Jissu Sengupta | Srijit Mukherji | Bhawal Sanyashi | Uttam Kumar

সায়ক বসু

পরদায় ফিরছেন শ্রীপর্ণা

sriparna-roy-big মিউজ়িক ভিডিয়ো, টেলিফিল্ম ছাড়া অনেকদিন পরদায় দেখা যায়নি শ্রীপর্ণা রায়, ওরফে ‘টুসু’কে। তবে এবার বোধহয় প্রতীক্ষার অবসান। পরের বছর নিশ্চিতভাবেই ছোট পরদায় ফিরছেন শ্রীপর্ণা। সেইমতো চুক্তিবদ্ধও তিনি। সারপ্রাইজ় এলিমেন্ট এই, বাংলা না হয়ে হিন্দিতে হলেও হতে পারে সেই কাজ, তবে তা নিয়ে বেশি না এগনোই ভাল। আসলে কাজগুলি হয়েও হয়ে উঠছে না। শুরু হচ্ছে না আর কী। অফার অনুযায়ী মাসিক পেমেন্ট পাচ্ছেন ঠিকই, কিন্তু তবু একটু খুঁতখুঁত করছে অভিনেত্রীর মন। ইতিমধ্যে ছবির অফার, অনেকগুলি সিরিয়ালের কথা হলেও চুক্তিকেই সম্মান করতে চান শ্রীপর্ণা। তবে কাজের ক্ষেত্রে সৌভাগ্য-দুর্ভাগ্যর মাঝামাঝি এলাকায় বাস করলেও, একটি ব্যাপারে কিন্তু শ্রীপর্ণার বিধি সত্যিই বাম। মোবাইল ফোন। তাঁর আইফোনটি বারবার খারাপ হচ্ছে আর সারালে আবার গোলমাল করছে। এই মুহূর্তে নাকি তাঁর কন্ট্যাক্ট লিস্ট পৃথিবীর সবচেয়ে ফাঁকা এলাকা!

Sriparna Roy | comeback | Tushu | Acropolis

ধৃতিমান গঙ্গোপাধ্যায়

টলিপাড়ার নতুন জুটি

arunima-soham-big বাংলা ছবিতে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অভিনেতারা জুটি বেঁধেছেন। টলিউডের সেরকমই এক নতুন জুটি সোহম চক্রবর্তী এবং অরুণিমা ঘোষ। এই প্রথম। আবির চট্টোপাধ্যায় এবং রাইমা সেন অভিনীত ‘হৃদ্‌ মাঝারে’ ছবির পরিচালক রঞ্জন ঘোষের দ্বিতীয় ছবির জন্য জুটি বেঁধেছেন সোহম-অরুণিমা। তবে চিরাচরিত গ্ল্যামারাস ছবি এটি নয়। এই ছবিতে সোহম-অরুণিমা এক আদিবাসী দম্পতির ভূমিকায় অভিনয় করছেন। ছকভাঙা এই জুটি দর্শকের মন জয় করতে পারে কি না, তা শুধুই সময়ের অপেক্ষা।

soham chakrabarty | Arunima Ghosh | Ranjan Ghosh

অংশুমিত্রা দত্ত

রসগোল্লার জয়ে খুশি পাভেল

rashagolla-big ওড়িশাকে হারিয়ে রসগোল্লার জিআই রেজিস্ট্রেশন পেয়েছে বাংলা। তাই নিয়ে গতকাল থেকে হইচইয়ের অন্ত নেই। আর হবে না কেন, গত দু’বছর ধরে তো ওড়িশার সঙ্গে এমন এক জিনিস নিয়ে বাংলার লড়াই চলছিল, যেটা তার সংস্কৃতির অঙ্গ! নবীন চন্দ্র দাস ওরফে নবীন ময়রার ভালবাসার জেরে তৈরি রসগোল্লার গল্পই তো মিথ্যে হয়ে যেত তা হলে! যাই হোক, খাদ্যরসিক বঙ্গবাসীর এই খুশির দিনে অবশ্য আর এক বঙ্গবাসীরও খুশির অন্ত নেই। তিনি পরিচালক পাভেল। আগামি বছরই নবীন ময়রার জীবনের গল্পকে বড় পরদায় আনছেন তিনি… রসগোল্লা। শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং নন্দিতা রায় প্রযোজিত এই ছবির শুটিং শুরু হবে কয়েক মাসের মধ্যেই। কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ছেলে উজান গঙ্গোপাধ্যায় থাকবেন নবীন ময়রার চরিত্রে। তবে খবর সেটা নয়। খবর হল, রসগোল্পার এই বঙ্গজয়ে বেশ খুশি পাভেল। কনফিডেন্টও। রসগোল্লার জিআই রেজিস্ট্রেশন বাংলা না পেলে তাঁর ছবিটিই দাঁড়াত না, সেই জন্যই? প্রশ্ন শেষ করতে না দিয়ে পাভেল বলেছেন, ‘‘আমি শুরু থেকেই জানতাম, বাংলা এই লড়াই জিতবে। আরে, রসগোল্লা বানানো কি ওড়িশার মুখের কথা নাকি! ওই স্পঞ্জি ব্যাপারটাই তো আসবে না! আর আমার অনেক বন্ধুই আমাকে বলেছিলেন, এই ভয়টার কথা। সিনেমা তৈরিটা এই ঘটনাটার উপরেই নির্ভর করে ছিল। কিন্তু আমি কনফিডেন্টই ছিলাম। আরে, ওড়িশায় চিনির ব্যবহারই এসেছে বাংলার অনেক পরে। বাংলার নোবেল গেছে, আরও কত কী চুরি গেছে। কিন্তু রসগোল্লা কোনওদিন যেতে দিত না। সেটাই হয়েছে। আর কোনওদিন শুনেছেন, ওড়িশার কোনও মানুষকে বাইরের কেউ বলেছে, ‘আরে রসগোল্লা লেকে আনা?’ এটা একান্তই বাঙালির। আজ বরং প্রমাণ হল আমার মা আসলে আমারই মা। যাই হোক, প্রাণ ভরে রসগোল্লা খান আর বাংলা সিনেমা দেখুন।

Pavel | Rasogolla | Shibaprasad | Nandita | windows production house

আবার টিভির পরদায় সোলাঙ্কি

solanki-big আনন্দলোকের পাঠককে আমরা জানিয়েছিলাম ‘ইচ্ছেনদী’র ‘মেঘলা’, অর্থাৎ সোলাঙ্কি রায় উচ্চশিক্ষার জন্য পাড়ি দিয়েছেন নিউজ়িল্যান্ড। প্রসঙ্গত, সোলাঙ্কির বয়ফ্রেন্ডও নিউজ়িল্যান্ডেই থাকেন। কিছুদিন আগে দেশে ফিরেই সোলাঙ্কি নতুন ধারাবাহিক ‘সাত ভাই চম্পা’র কাজ শুরু করেছেন। তাহলে কি ছোট পরদার টানেই দেশে ফিরলেন তিনি? ‘‘না না, সেরকম কিছু নয়। আমি অক্টোবরে ফিরেছি। টিকিট তো অনেক আগেই কাটতে হয়। এখানে ফেরার পর সিরিয়ালের অফারটা পাই,’’ জানালেন সোলাঙ্কি। তা বলে ভাববেন না, লেখাপড়ার প্ল্যান বাতিল হয়ে গিয়েছে। সোলাঙ্কির কথায়, ‘‘আসলে আমার নিউজ়িল্যান্ডে সেটল করতে কিছুটা দেরি আছে। সামনের বছর আবার যাব। তাই ভাবলাম, এখানে যখন বেশ কিছুদিন আছি, তখন কাজটা নিয়ে নিই। এই ধারাবাহিকে আমি লিড নই। কিন্তু খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্র। রোজই শুট করছি।’’ অভিনয়ের টানে পড়াশোনা ছেড়েছেন অনেকেই। কিন্তু পড়াশোনার জন্য অভিনয় ছাড়ার নজির খুব বেশি মনে পড়ে না। তবে দেশে ফিরেই যেভাবে শুটিং শুরু করেছেন, তাতে অভিনয় যে তাঁকে ছেড়ে যায়নি, তা বেশ পরিষ্কার।

অংশুমিত্রা দত্ত