Category Archives: sports

এটা কি ঠিক হল?

sports-virat বিরাট কোহলির আচরণ দেখে এখন সুকুমার রায়ের একটা কবিতার লাইনের কথা খুব মনে পড়ছে। ‘দিব্যি ছিলেন খোশমেজাজে চেয়ারখানি চেপে, একলা বসে ঝিমঝিমিয়ে হঠাৎ গেলেন ক্ষেপে…’। বেশ তো চলছিল… কোহলির বৃহস্পতি এখন তুঙ্গে! সেঞ্চুরির পর সেঞ্চুরি, রেকর্ডের পর রেকর্ড, অধিনায়ক হিসেবেও নজরকাড়া সাফল্য— সবই একে-একে আসছিল হাতের মুঠোয়। নিজের যোগ্যতায় নিজেকে অনেকের কাছে আইডল করে তুলেছিলেন তিনি। সংবাদমাধ্যমও তাঁর প্রশংসায় পঞ্চমুখ। এর মধ্যে যে এমন একটা কাণ্ড তিনি ঘটিয়ে ফেলবেন, তা সত্যিই ভাবা যায়নি…

ব্যাপারটা হয়তো ইতিমধ্যেই অনেকে জেনে গিয়েছেন, তবুও যাঁরা জানেন না, তাঁদের বলি, সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন সাধারণ ব্যক্তি কোহলিকে ‘ওভার-রেটেড’ ব্যাটসম্যান হিসেবে চিহ্নিত করে বলেন যে তিনি ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের থেকে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানদের খেলা দেখতে বেশি পছন্দ করেন। সম্প্রতি লঞ্চ হওয়া নিজস্ব অ্যাপে বিরাট কোহলি একটি ভিডিয়ো বার্তায় জানিয়েছেন যে ওই ব্যক্তির দেশ ছেড়ে চলে যাওয়া উচিত, কারণ তাঁর মতে যারা ভারতে থেকে অন্য দেশের খেলোয়াড়দের ভালবাসেন, তাদের দেশে থাকার অধিকার নেই…

স্বাভাবিকভাবেই এই ভিডিয়ো প্রকাশ পাওয়ার পর থেকেই কোহলির উদ্দেশে নিন্দার ঝড় বয়ে গিয়েছে। এতটা রূঢ় মন্তব্য করা হয়তো সত্যিই উচিত হয়নি বিরাটের। ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ ভিন্ন হতেই পারে, আর তা যে সবসময় দেশ-কালের সীমানা মেনে চলবে, তা-ও নয়। বিরাট কোহলি নিজেও অনেক সময় অনেক জায়গায় বলেছেন যে হার্শেল গিবস, এ বি ডেভিলিয়ার্স তাঁর পছন্দের ক্রিকেটার। তবে তো, বিরাট নিজেও নিজের বেঁধে দেওয়া সীমা লঙ্ঘন করেছেন… আর দেশ জুড়ে যে অসহিষ্ণুতার আবহ তৈরি হয়েছে, তাতে মনে হয় টিম ইন্ডিয়ার ক্যাপ্টেনের আরও একটু সংযত হওয়া উচিত ছিল, তিনি সেলিব্রিটি বলেই তো আর যা খুশি মন্তব্য করতে পারেন না… তাঁর বোঝা উচিত, দেশ জুড়ে এখন তাঁর যা জনপ্রিয়তা, তাতে অন্য কেউ কোনও বিতর্কিত মন্তব্য করলে যে প্রতিক্রিয়া হবে, তাঁর করা মন্তব্যে সেই প্রতিক্রিয়া হবে অনেক বেশি। নাকি এইসব মন্তব্য করে তিনি বিশেষ কারওর নজরে পড়তে চাইছেন?

Virat Kohli | Controversy

নতুন ভূমিকায় মহারাজ


ব্যাটসম্যান, ক্যাপ্টেন, ধারাভাষ্যকার, সিএবি প্রধান— এইসব ভূমিকার বাইরে এবার এক নতুন ভূমিকায় দেখা গেল মহারাজ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে। একটি ইমারতিদ্রব্য নির্মাতা সংস্থার উদ্যোগে নির্মিত দুর্গাপুজোর বিশেষ গান, ‘জয় জয় দুর্গা মা’-তে গানের সঙ্গে ঠোঁট এবং পা মেলাতে দেখা গিয়েছে মহারাজকে। রাজ চক্রবর্তী পরিচালিত এই মিউজ়িক ভিডিয়োতে সৌরভের সঙ্গে রয়েছেন জিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, মিমি চক্রবর্তী, শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় ও বনি সেনগুপ্ত। এই গানটির কথা প্রিয় চট্টোপাধ্যায়ের এবং কোরিয়োগ্রাফির দায়িত্বে ছিলেন বাবা যাদব।

ভিডিয়োটি দেখতে ক্লিক করুন সঙ্গের লিঙ্কে-

Sourav Gangult, Jeet Ganguli, Raj Chakraborty, Mimi Chakraborty, Bonny Sengupta, Subhasree Ganguly, Joy Joy Durga Ma.

তাসকিনের ‘স্বীকারোক্তি’!

কী বলবেন, দুর্ভাগ্য? বোধ হয় শুধু দুর্ভাগ্য নয়… শালীনতার অভাব এবং ট্রোল করার মানসিকতাও দায়ী ঘটনাটির পিছনে। শুরুতে খবরটা খুব আনন্দের সঙ্গেই দিয়েছিলেন তাসকিন আহমেদ। আসলে এশিয়া কাপ যখন চলছিল, তখন তাসকিনের স্ত্রী ছিলেন সন্তানসম্ভবা। এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতের কাছে হেরে গিয়েছে বাংলাদেশ। মুষড়ে পড়া সমর্থকদের একটু চাঙ্গা করতে নিজের জীবনের খুশিটা তাদের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এই খেলোয়াড়। নিজের সন্তান এবং স্ত্রীয়ের একটি ছবি পোস্ট করে…কিন্তু উল্টে প্রতিদান হিসেবে যা পেলেন, তাতে লজ্জায় মাথা হেঁট হতে হয়। তাসকিনের ‘ভক্ত’ হিসেবে থাকা কিছু সাধারণ মানুষ শ্লেষে বিদ্ধ করলেন তঁকে। বিয়ে এবং সন্তান হওয়ার মাঝের সময়ের ব্যবধান নিয়ে প্রশ্ন থেকে শুরু করে চরিত্রিক বৈশিষ্ট্য নিয়েও পোস্ট শুরু হয়। ব্যাপারটা এতটাই নোংরা দিকে যায় যে, শেষে উপায় না দেখে তাসকিন কমেন্টবক্সে নিজে একটি পোস্ট করেন…

‘‘সবার উদ্দেশ্যে ১ টা কথা বলি, কেউ মনে কিছু নিয়েন না , আমার বিয়ে হইসে ১১ মাস. দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ থেকে এসেই বিয়ে করলাম ৩১ অক্টোবর এবং বিয়ের বয়স হলো ১১ মাস, সাউথ আফ্রিকা ছিলাম ৪৮ দিন, সব মিলিয়ে হল ১২ মাস ১৮ দিন. আমার পুত্র সন্তান হইলো ৯ মাস ২৭ দিনে.. যদি বিয়ের আগে আমার স্ত্রী প্রেগন্যান্ট হইতো তাহলে আমার বাচ্চা বিয়ের ৬ মাস এর মধ্যেই দুনিয়াতে থাকতো..যাই হোক যাদের ভুল ধারণা ছিল আমাদের প্রতি তাদের জন্যে এই মেসেজটি। ধন্যবাদ’’

বলা বাহুল্য, তাসকিনের এই পোস্টের পরেই সহমর্মিতা এবং শুভেচ্ছা সংক্রান্ত অনেক বার্তা এসেছে। কিন্তু প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে… ফেসবুকে লেখার স্বাধীনতা আছে বলে কি যখন-তখন যা খুশি পোস্ট করা যায়? যদি সেই পোস্ট ‘স্বাধীন, সাবালক’ একজন মানুষের ব্যক্তিগত ইচ্ছে-অনিচ্ছে বা জীবন-যাপনকে কাঠগড়ায় তোলে, তা হলেও? তাসকিনের সঙ্গে হওয়া ঘটনাটা বিচ্ছিন্ন কোনও ঘটনা নয়। ‘সমকামিতা’ হোক বা ‘পরকীয়া’… অর্ধেক জেনে, অর্ধেক বুঝে সোশ্যাল মিডিয়ায় করা পোস্টগুলো তো আসলে মানুষের অন্তঃসারশূন্যতাই প্রমাণ করছে বারবার! কবে আর বুঝব আমরা?

বার্সেলোনা বনাম মোহনবাগান!

barcelona-vs-mohun-bagan-big সবকিছু ঠিকঠাক এগোলে, সেপ্টেম্বর মাসের ২৮ তারিখ কলকাতায় মুখোমুখি হতে চলেছে দুই লেজেন্ডারি ফুটবল ক্লাব। এফ সি বার্সেলোনা এবং মোহনবাগান। শোনা যাচ্ছে, দুই ক্লাবেরই বেশ কয়েকজন কিংবদন্তী ফুটবলারকে এই ম্যাচে খেলতে দেখা যাবে। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন এরিক আবিদাল, জিয়ানলুকা জ়ামব্রোত্তা, এডগার দাভিদস, প্যাট্রিক ক্লুইভার্ট, হোসে রামিরেজ় ব্যারেটো এবং আরও অনেকে। ‘ক্ল্যাশ অফ দ্য লেজেন্ডস’ নামক এই ম্যাচ নিয়ে উত্তেজনার শেষ নেই মোহনবাগান ক্লাবের সেক্রেটারি অঞ্জন মিত্রর। তিনি জানান, ‘‘দুটো ক্লাবই শতাব্দীপ্রাচীন। প্রচুর ঐতিহ্য ও স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে। বার্সেলোনা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮৯৯ সালে এবং আমাদের ক্লাবের বার্থ ইয়ার ১৮৮৯। তাই প্রকৃত অর্থেই এটা ‘ক্ল্যাশ অফ দ্য লেজেন্ডস’ হতে চলেছে। আমরা মুখিয়ে আছি ম্যাচটির জন্য।’’ শুধু ফুটবল ম্যাচই নয়, তার সঙ্গে এফ সি বার্সেলোনা-র প্লেয়ারদের চ্যারিটি ডিনার সহ বেশ কিছু সমাজসেবামূলক কাজেও যোগদান দিতে দেখা যাবে।

আসিফ সালাম

Barcelona ve mohunbagan | Barcelona in Kolkata

জাতীয় দলে অর্জুন

arjun-tendulkar-big অনূর্ধ্ব-১৯ ভারতীয় ক্রিকেট দলে জায়গা করে নিলেন সচিন তেন্ডুলকর-পুত্র অর্জুন। চারদিনের দু’টি ম্যাচ খেলতে শ্রীলঙ্কা যাচ্ছে অনূর্ধ্ব-১৯ দল। তার জন্যই নির্বাচিত হয়েছেন অর্জুন তেণ্ডুলকর। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ায় ক্লাব ম্যাচে বেশ ভাল খেলেছেন তিনি। বাঁ-হাতি পেসার হিসেবে ধারাবাহিকভাবে ভাল গতি আনেন অর্জুন। মূলত সে কারণেই নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ব্যাটেও তিনি বেশ মারকুটে। তবে বিরুদ্ধ মতও উঠেছে। সচিনের পুত্র বলেই যে ‘সাধারণ’ খেলোয়াড়টি ভারতীয় দলে জায়গা করে নিয়েছেন, এমন কথা বলছেন অনেকেই। সচিনের পুত্র বলে তাঁকে যে অতিরিক্ত চাপ নিতেই হবে, একথা কিন্তু জানা-ই। দেখা যাক, অর্জুন সেই চাপ নিতে পারেন কিনা।

Arjun Tendulkar | Sachin Tendulkar

ক্রিকেট-দাড়ির সেকাল-একাল


সে এক যুগ ছিল! শ্মশ্রুগুম্ফ বাগিয়ে মাঠে নামতেন প্রবাদপ্রতিম ক্রিকেটাররা। স্যার ডব্লু জি গ্রেসকেই মনে করে দেখুন। যেমন বিরাট আয়তন (এবং কীর্তির) মানুষ, তেমনই বিরাট আয়তনের দাড়ি। গ্রেস অবশ্য ব্যতিক্রমই ছিলেন। সেযুগে, এবং তারও পর অনেকটা লম্বা যুগে, ‘হোয়াইটস’ পরিহিত ক্রিকেটাররা ছিলেন ভদ্রতার পরাকাষ্ঠা, কামানো গালই ছিল তাঁদের ‘ফ্যাশন’। লাফ মেরে ভারতীয় ক্রিকেটে ঢুকি। ক্লিন শেভ্‌ন-এর চেয়ে এখানে আবার গোঁফটা বেশি। পুরনো ক্রিকেট ভিডিয়ো গেম খুললেই বোঝা যাবে, গপ্‌পোটা কেমন। কপিল দেব, ভেঙ্গসরকর, রবি শাস্ত্রী হয়ে কুম্বলে-শ্রীনাথ-সৌরভ… সবাই ভরসা রাখতেন গোঁফেই। মজা হল, সচিন তেন্ডুলকরের গালে দাড়ি গজানোর পর। সেই সচিনকে মনে আছে তো? ফ্রেঞ্চকাট, এক কানে দুল, এক কথায় কুৎসিত? সে যুগে ভারতীয় দলে অনেকেই সচিনের দেখাদেখি ফ্রেঞ্চকাট রাখা শুরু করেছিলেন। মানাক চাই না মানাক, কুম্বলে-শ্রীনাথরাও ফরাসি কায়দাটি আপন করলেন। এটাই বোধহয় হয়। দলের সেরা যে পথে যায়, সে পথেই হাঁটেন বাকিরা। ফলে ফ্রেঞ্চকাট গেল। এল বিরাট কোহলির যুগ।

বিরাটের গালে চাপদাড়ি উঠতেই, ভারতীয় দলের সব্বাই গালে ওই দাড়ি বাগিয়ে ফেললেন। সব্বাই! অবশ্য গ্ল্যামজগতের এখন এটাই রীতি। মডেল, অভিনেতা, ক্রিকেটার, ফুটবলার… সবাই ট্রিম্‌ড চাপদাড়ি রাখেন। সে মেসি হোন বা জর্জ ক্লুনি। ম্যানলিনেস তো এভাবেই চেহারা বদলায়। ইতোমধ্যে আর একটি ট্রেন্ড ভারতীয় ক্রিকেট টিমের কল্যাণে মাথা চাড়া দিয়েছে। গতবছর থেকেই শুরু হয়েছে ব্যাপারটা। নাম, ‘ব্রেক দ্য বেয়ার্ড’। গ্রীষ্মকালে দাড়ি কুটকুট করে, তাই দাড়ি কেটে ফেলছেন ক্রিকেটাররা। আগেরবছর বেশ কিছু ক্রিকেটার এভাবে দাড়ি কামিয়ে ছোট করেছিলেন। এবার সদ্যসমাপ্ত আইপিএল-এর সময়ে আবার দেখা গেল সেই মজা। শাকিব অল হাসান একদিন পুরো দামিটাই কামিয়ে ফেললেন। তিনি অবশ্য নিজে থেকেই করেছিলেন।

কিন্তু তারপর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে গেল দাড়ি কামানোর দৌড়। একজন করে মেকওভার করেন, তারপর আর একজনকে চ্যালেঞ্জ করেন। এভাবেই শিখর ধওয়ান, হার্দিক পাণ্ড্য, ক্রুনাল পাণ্ড্য, মনিশ পাণ্ডে, ঋষভ পন্‌থ মায় কেন উইলিয়ামসন অবধি দাড়ি হালকা করে, অন্য কায়দা এনেছেন। মজার কথা, এঁদের প্রায় সবার গালেই কিন্তু এখন ফ্রেঞ্চকাট! ট্রেন্ড কি তবে ফিরল? একজন অবশ্য এসব থেকে শতহস্ত দূরে। তিনি বিরাট কোহলি। আসলে তাঁর বেটার হাফ তো গতবারই বলে দিয়েছেন, দাড়িতে হাত দেওয়া চলবেই না!

Shikhar Dhawan, Break the beard, hardik pandya, krunal pandya, virat kohli, manish pandey

জার্সি ও টিম লঞ্চ

sports-2.4.2018-img1 বাইপাসের ধারে এক পাঁচতারা হোটেলে, আইপিএল ২০১৮-এ ‘কলকাতা নাইট রাইডার্স’-এর টিম অফিশিয়ালি লঞ্চ করা হল। সঙ্গে এই মরসুমে তাদের জার্সিও মুক্তি পেল। এক জনপ্রিয় মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা যারা আগে ‘কেকেআর’-এর প্রধান স্পনসর ছিল, তারা আবার এই সিজ়নে ফিরে এল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ‘কেকেআর’-এর সিইও ভেঙ্কি মাইসোর সহ টিমের সব সদস্যরা। অনুষ্ঠানে ‘কেকেআর’-এর নতুন অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক বলেন, ‘‘আমার উপর এবার বাড়তি দায়িত্ব রয়েছে। তবে অধিনায়ক হিসেবে আমি বলতে পারি, এবারের টিম খুব ভাল। আমার পূর্বসূরি গৌতম গম্ভীরের সাফল্য আমি ধরে রাখতে পারব বলেই বিশ্বাস করি।’’ দীনেশকে প্রশ্ন করা হয়, তিনি তো ঠান্ডা মাথার এবং একেবারেই আগ্রাসী নন, এরকম অ্যাটিটিউড কি একজন অধিনায়কের পক্ষে মানানসই? এর উত্তরে হাসিমুখে দীনেশ জানান, ‘‘আমিও একজন স্বাভাবিক মানুষ। তাই আমার কখনও রাগ হয় না এটা ভুল কথা। আর অধিনায়ক হিসেবে আমি কতটা মানানসই এটা মাঠে প্রমাণিত হবে। আর আমার সবচেয়ে বড় শক্তি হল আমার ধৈর্য। যে-কোনও পরিস্থিতিতে মাথা ঠান্ডা রাখতে পারাটা খুব জরুরী।’’ অনুষ্ঠানে রবিন উথপ্পা তাঁর বাবা হওয়ার অভিজ্ঞতা এবং নিজের সিক্স প্যাক অ্যাবসের গল্পও বলেন। এদিকে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া বল বিকৃতির ঘটনা প্রসঙ্গে টিম কোচ জাক কালিস বলেন, ‘‘এই ঘটনা আমাদের একটা শিক্ষা দিল যে ক্রিকেট ভদ্রলোকদের খেলা। তাই সেটা ভদ্রভাবেই খেলা উচিত। ‘কেকেআর’ কিন্তু মাঠে এই স্পোর্টম্যান স্পিরিট বরাবর দেখিয়ে এসেছে এবং ভবিষ্যতেও দেখাবে।’’ এদিকে ‘কেকেআর’-এর জনপ্রিয় অলরাউন্ডার কাম গায়ক আন্দ্রে রাসেল জানান, ‘‘এবারের ‘আইপিএল’-এর প্রস্তুতির জন্য আমার গান-বাজনা কয়েকমাস বন্ধ রেখেছি। তবে ভবিষ্যতে শাহরুখ খানকে নিয়ে একটা অ্যালবাম করার ইচ্ছে আছে যেখানে রবিন উথপ্পা ও কুলদীপ যাদবও জায়গা পাবে!’’ সবমিলিয়ে অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিস্থিত হাসিখুশি হলেও, তার মধ্যে ‘কেকেআর’ খেলোয়াড়দের মাঠে নেমে নিজেদের প্রমাণ করার তাগিদ ধরা পড়ে। ‘জ়িরো’র শুটিংয়ের জন্য টিম মালিক শাহরুখ খান অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে না পারলেও, ভিডিয়োর মাধ্যমে তিনি তাঁর খেলোয়াড়দের শুভেচ্ছাবার্তা জানান।

আসিফ সালাম

Kolkata knight riders | kkr | kkr team | ipl 2018

ব্যুমেরাং না হয়ে যায় !


নিয়েল ওয়াট কে মনে আছে আপনাদের? হয়তো নেই। পিছিয়ে যাওয়া যাক ২০১৪ সালে। বাংলাদেশে টি-২০ বিশ্বকাপে ঝড় উঠেছে বিরাট কোহলির ব্যাটে, সেমিফাইনালের ঝোড়ো ইনিংসের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় উপচে পড়ছে ভক্তদের শুভেচ্ছাবার্তা। এর মধ্যেই এক বিদেশিনীর কাছ থেকে টুইটারের মাধ্যমে বিয়ের প্রস্তাব পেলেন বিরাট! হ্যাঁ, এই অনুরাগিনীই হলেন ড্যানিয়েল ওয়াট, ইংল্যান্ডের জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের সদস্যা। বিবাহপ্রস্তাব আসার সঙ্গে সঙ্গেই নেটিজ়েনদের মধ্যে তৈরি হয় উত্তেজনা, টুইটে লাইক পড়ে প্রচুর, মুহূর্তের মধ্যে রিটুইট হয় বহুবার। ইতিমধ্যে বিরাট আর অনুষ্কার সম্পর্ক নিয়েও মিডিয়াতে কথা চালাচালি শুরু হয়েছে। সকলেই তাই রয়েছে বিরাটের প্রত্যুত্তরের অপেক্ষায়। বিরাট অবশ্য সুনিপুণভাবে বিতর্ক এড়িয়ে যান এবং সেই বছরই ডার্বিশায়ারে ভারত-ইংল্যান্ড ম্যাচ খেলতে গিয়ে তাঁর নিজের একটি ব্যাট উপহার দেন ড্যানিয়েলকে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ড্যানিয়েল জানিয়েছেন যে তিনি এই ব্যাটটি এই মাসের শেষে মুম্বইতে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজ়ে ব্যবহার করতে চান, যেখানে ইংল্যান্ডের অন্যতম প্রতিপক্ষ ভারত। তিনি এই ব্যাটটিকে ‘বিস্ট’ বলে পরিচয় দিয়েছেন। আশঙ্কা থেকেই যায়, ভারতের বিরুদ্ধে ড্যানিয়েলের হাতে এই ব্যাট যদি ঝড় তোলে, তবে তার দায় আবার ব্যাটের উপর বর্তাবে না তো! ভক্তদের মতিগতি কিন্তু আগে থেকে বোঝা দায়!

Virat Kohli | Anushka Sharma | Danielle Wyatt

ফ্যামিলিম্যান ধোনি

Dhoni-in-Vacation-img1 পরশু ইনস্টাগ্র্যামে শেয়ার হওয়া বেশ কিছু ছবির কোলাজ নিয়ে তৈরি একটি ভিডিওতে দেখা যায়, আমাদের প্রায় সকলেরই পরিচিত এক ব্যক্তি তার বউ-মেয়ের সঙ্গে হাসিঠাট্টা করছেন; পোষা কুকুরদের সঙ্গে বল নিয়ে খেলতেও দেখা যায় তাঁকে। Dhoni-in-Vacation-img2 এক মিনিটের এই ভিডিওটির ক্যাপশন, “পরিবারের সঙ্গে কাটানো কিছু মজার মুহূর্ত”। একঘণ্টার মধ্যে তিন লক্ষের বেশি লোক দেখে নিয়েছে সেই ভিডিও! ঝড়ের গতিতে পড়তে থাকে লাইক আর কমেন্টস! Dhoni-in-Vacation-img3অবশ্য হওয়ারই কথা, মানুষটি যে আমাদের প্রিয় মহেন্দ্র সিংহ ধোনি! কাজেই বোঝা যাচ্ছে, ভারতীয় দলের সঙ্গে শ্রীলঙ্কা সফরে না গেলেও বর্তমানে পরিবারকে নিয়ে খুবই ব্যস্ত তিনি। ভিডিওতে ফুরফুরে মেজাজের ধোনিকে দেখে মনে হল, রোজকার রুটিনের বাইরে এই ছুটি তিনি ভালই উপভোগ করছেন। এখন ছুটি কাটালেও আগামী ৭ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া আইপিএল-এ ‘চেন্নাই সুপার কিংস’-এর জার্সিতে দেখা যাবে ধোনিকে।

MS Dhoni | IPL | Sakshi Dhoni | Ziva Dhoni | Sri Lanka

ভাড়া-ই মাসে ১৫ লক্ষ !

virushka-big দিনকয়েক আগে বিরাট কোহলি নিজের ফ্ল্যাটের ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে তোলা ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে আপলোড করার পর থেকেই নেট দুনিয়ায় তুমুল শোরগোল শুরু হয়ে গিয়েছে। ভক্তরা ভাবছে এটাই হয়তো মুম্বইয়ের অভিজাত ওয়রলি অঞ্চলের সেই বিলাসবহুল ফ্ল্যাট যা তিনি ৩৪ কোটি টাকার বিনিময়ে কিনেছিলেন ২০১৬ সালে। কিন্তু এখন খবর, এটা নাকি সেই ফ্ল্যাটটি নয়, ওয়রলি অঞ্চলেই এই ফ্ল্যাটটি বিরুষ্কা ভাড়া নিয়েছেন মাসিক ১৫ লক্ষ টাকায়! শুধু তা-ই নয়, ২৬৭৫ বর্গফুটের এই ফ্ল্যাটের ডিপোজ়িট মানি হিসেবে দিতে হয়েছে দেড় কোটি টাকা। শোনা যাচ্ছে, এখানে নাকি দু’বছরের জন্য থাকবেন বিরাট-অনুষ্কা। সত্যি, একটি আকাশছোঁয়া ফ্ল্যাট থাকতেও আবার একটি… একেই বোধহয় বলে, বড়লোকের খেয়াল!

Virat Kohli | Anushka Sharma | Virushka, Worli