Category Archives: music news

আর কতদিন…

emon-somlata-big কৃষ্ণনগরে ইমন চক্রবর্তীর হেনস্থার ঘটনাটা ফের একটা প্রশ্নের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিল। গান করেন বলে কি ন্যূনতম সম্মানও আশা করতে পারবেন না এই বঙ্গের শিল্পীরা? পারিশ্রমিক দেওয়া হচ্ছে বলে শিল্পীদের সঙ্গে যেমন খুশি ব্যবহার করা যাবে, হেনস্থা করাও যেতে পারে… এমন ভাবনাচিন্তা কি মধ্যযুগে ফিরে যাওয়ার পরিচায়ক নয়? মাসখানেক আগে মেখলা দাশগুপ্ত, কিছুদিন আগে সোমলতা আচার্য চৌধুরী এবং গতকাল ইমন চক্রবর্তী… প্রত্যেকেই কলকাতার বাইরে গান গাইতে গিয়ে চরম হেনস্থার মুখে পড়েছেন। উত্তরবঙ্গ থেকে সোমলতার এবং কৃষ্ণনগর থেকে ইমনের ফেসবুক লাইভ ভিডিয়োটি এখন সকলেই দেখে ফেলেছেন… প্রত্যেকবারই হুমকি, ‘‘এখান থেকে (অনুষ্ঠান চত্বর) কী করে বেরোতে পারে দেখব!’’ অপরাধ কী? না, টাকাপয়সা নিয়ে ‘নির্দিষ্ট’ সময় পর্যন্ত গান করেননি শিল্পীরা! যদিও এই নির্দিষ্ট সময়টা আয়োজকদেরই ঠিক করে নেওয়া, কিন্তু তা-ও বলতে হয়, ঠিক কোন রুচি এবং শিক্ষা থেকে এই ধরনের মন্তব্য করা যায়? একজন মহিলা শিল্পীর গাড়ি আটকে রেখে, তাঁকে জল এবং খাবার না দিয়ে, তারপরও এই ধরনের মন্তব্য ঠিক কীসের আস্ফালন? একজন শিল্পীকে টাকা দিয়েছি মানেই তাঁকে যা খুশি বলা যায়, ভদ্রতার খাতিরে তিনি হাত বা মুখ চালাতে পারবেন না বলে গা়ড়ি আটকে হুমকি দেওয়া যায়, তাঁকে নিরাপত্তাহীনতার চরম সীমায় নিয়ে যাওয়া যায়… এই চিন্তাভাবনা তো খুব উচ্চ মানসিকতা থেকে আসে বলে মনে হয় না। অথচ দুর্ভাগ্যজনক হল, প্রতিবারই এই দোষে দুষ্ট বলে যাঁদের কাঠগড়ায় তোলা হচ্ছে, তাঁরা হয় রাজনৈতিকভাবে নয়তো সামাজিকভাবে বেশ ‘উচ্চ’ পদে আসীন! ফলে ভয়টা আরও সেখানেই। যাঁদের নিরাপত্তা দেওয়ার কথা, তাঁরাই যদি নিরপত্তাহীন করে দেন, তা হলে ভয় তো হবেই। কিন্তু এই ‘আয়োজক’রা বোধ হয় বুঝতে পারছেন না পরপর একইরকমের ঘটনা ঘটতে থাকলে একদিন না একদিন প্রতিরোধ হবেই। সোমলতা, ইমনরা নিজেদের মতো করে প্রতিবাদ করেছেন এবং তার আঁচ বাকি শিল্পীদের উপর গিয়েও পড়েছে। এখনও যদি পরিস্থিতি না শোধরায়, তা হলে ক্ষোভ পুঞ্জীভূত হতে বেশি সময় লাগবে না। আর শিল্পীদের পূঞ্জীভূত ক্ষোভ যে কী সাংঘাতিক জিনিস, তার সাক্ষী তো ইতিহাসই…

প্রয়াণ!


চলে গেলেন গায়ক দ্বিজেন মুখোপাধ্যায়! মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। বাংলা সঙ্গীত জগতের এক নক্ষত্রসম ব্যক্তিত্ব ছিলেন দ্বিজেন। মূলত রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী হিসেবে খ্যাতি পেলেও নানা ধরনের গান গেয়েছিলেন তিনি। করেছেন হিন্দি ছবির প্লে-ব্যাকও। তাঁর মৃত্যু বাংলা সঙ্গীত জগতের পক্ষে এক অপূরণীয় ক্ষতি বটে।

#dwijen Mukherjee, #death, #91 years, #Rabindrasangeet

বিরক্ত ইমন!

imon-music-bigতাঁর গানের অনুষ্ঠান থাকে বছরজুড়েই। কখনও মূল শহরে, আবার কখনও শহর ছেড়ে কিছুটা দূরে। তাতে তো একজন শিল্পীর আনন্দই হওয়ার কথা! কিন্তু এখন নাকি অনুষ্ঠানই হয়ে উঠছে ইমন চক্রবর্তীর বিরক্তির কেন্দ্র! উহুঁ, গান এবং এই ব্যস্ততা—দুটোই তিনি খুবই উপভোগ করছেন। কিন্তু তাঁর বিরক্তির কারণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত এক শ্রেণির শ্রোতা। এইসব শ্রোতাদের উদ্দেশে ইমন তাঁর সোশ্যাল মিডিয়ার একটি পোস্টে লিখেছেন— “দু’ একটা গানের পরেই কিছু সংখ্যক মানুষ নাচের গান শুনতে চাইছেন। নাচের গানটা ঠিক কি বলুন তো? অনুষ্ঠান দেখতে যাঁরা আসছেন তাঁরা Entertainment চান, মানছি । আমরাও আপনাদের আনন্দ দেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করি। নিজেরাও আনন্দ পাই। কিন্তু বার-বার নাচের গান, নাচের গান শুনে আদপেই গান গাওয়ার ইচ্ছে চলে যাচ্ছে। মনে হচ্ছে কতক্ষণে নেমে পালাব। এমনটা ভাল লাগছে না।” এই সংকট থেকে কি বের হতে পারবে বাংলা গানের স্টেজ পারফরমেন্স? সেটার উত্তর লুকিয়ে রয়েছে আগামীদিনের বাংলা গানের মধ্যেই!

তিতাস চট্টোপাধ্যায়

Iman chakraborty | music

কুমার শানুর নামে চক্রান্ত?

kumar-sanu-big0

এর আগেও তাঁর নামে মিথ্যে গুজব রটানো হয়েছে। আরও একবার তার পুনরাবৃত্তি হল। প্রায়ই শোনা যায় যে কুমার শানু নাকি বিজেপি-তে যোগ দিয়েছেন। যদিও এই ঘটনার কোনও সত্যতা নেই। বহুবছর আগে বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন শানু। তবে তার পিছনে একটাই কারণ ছিল। নিজের এনজিও-র জন্য যদি কিছু সুবিধে পাওয়া যায়। সেই সম্ভবনা যখন ক্ষীণ হয়ে যায়, তখন শানু বিজেপি থেকে বেরিয়ে আসেন। আনন্দলোক-এর ফেসবুক লাইভে এরকমই জানিয়েছিলেন বলিউডের এই মেলোডি কিং। তবে শানুকে নিয়ে এই চক্রান্ত চলতেই থাকে। বর্তমান এক বাংলা খবরের চ্যানেলে একটি খবর দেখে চমকে যান কুমার শানু। সেখানে এক্সক্লুসিভ খবর দেখানো হয় যে আগামী ১৬ ডিসেম্বর, শিলিগুড়িতে বিজেপি-র জনসভা ও রথযাত্রা মিছিলে নাকি কুমার শানু উপস্থিত থাকবেন। খবরটি দেখেই আনন্দলোক প্রতিনিধিকে ফোন করেন শানু। ক্ষুব্ধ গলায় জানান, ‘‘আনন্দলোক-এর মাধ্যমে আমার সকল শুভাকাঙ্খী, শুভানুধ্যায়ী শ্রোতাদের জানাচ্ছি, বর্তমানে একটি টিভি চ্যানেলে আমার সম্বন্ধে ভুল প্রচার করা হচ্ছে। বলা হচ্ছে, আমি নাকি শিলিগুড়িতে বিজেপি-র জনসভা ও রথযাত্রা মিছিলে উপস্থিত থাকব। খবরটি সম্পূর্ণ মিথ্যে। কোনও এক সময় আমি বিজেপি-তে যোগদান করেছিলাম, কিন্তু বর্তমানে আমি কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নই। সকল রাজনৈতিক নেতা ও কর্মীদের আমি সম্মান করি। দয়া করে আপনারা আমার মুখ থেকে কোনও কথা না শোনা অবধি কোনও গুজবে কান দেবেন না।’’

আসিফ সালাম

Kumar sanu | conspiracy against Bollywood singer kumar sanu

মোবাইল নিয়ে বিড়ম্বনা রূপমের!

rupam-islam-big এক অদ্ভুত বিড়ম্বনায় পড়েছেন রূপম ইসলাম। rupam-islam-big1 তিনি সস্ত্রীক আগরতলায় গিয়েছেন। এবং ২২ ঘণ্টায় নাকি তাঁর ও তাঁর স্ত্রী রূপসার টেলিফোন বিল হয়েছে ১৬,০০০টাকারও বেশি! কারণ হিসেবে ফোনের সার্ভিস প্রোভাইডার দেখিয়েছে আন্তর্জাতিক রোমিংয়ের অজুহাত। rupam-islam-big2 গোটা ঘটনাটি টুইট করে জানিয়েছেন গায়ক স্বয়ং। তিনি নেটওয়র্ক সংস্থাকে ফোন করলে তারা সটান জানায়, টাকা ফেরত দেওয়া বা অ্যাডজাস্ট করা যাবে না। এতেই বেজায় বিব্রত রূপম। সার্ভিস প্রোভাইডারের টুইটার হ্যান্ডলে গিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। বলে দিয়েছেন, একটা হেস্তনেস্ত করে ছাড়বেন তিনি। ছাড়বেন না সহজে!

পরিচালনায় অরিজিৎ

বহুদিন ধরেই ছবি পরিচালনা করার ইচ্ছে তাঁর। বহুবার বহু জায়গায় বলেওছেন সে কথা। কিন্তু গান নিয়ে প্রচণ্ড ব্যস্ততার কারণে সেটা হয়ে উঠছিল না। যাই হোক, অবশেষে পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করছেন অরিজিৎ সিংহ। ‘সা’ নামের এই ছবিটির মাধ্যমে এই ছোট্ট ছেলের গান শেখা এবং নিজেকে চেনার একটা গল্প দেখাবেন অরিজিৎ। ইতিমধ্যে শুটিং শুরু করে অনেকটা শেষও করে ফেলেছেন তিনি। এবং মজার কথা হল, এই ছবিটিতে ডেবিউ করছেন তাঁর ছেলে, জুলও। ‘সা’ অনেকাংশেই মিউজ়িক্যাল। আসলে এই ছবির মাধ্যমে ভারতীয় মার্গ সঙ্গীত এবং লোক সঙ্গীতের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন অরিজিৎ। আর ঠিক করে ফেলেছেন ছবিরি সিকোয়েলও করবেন। শোনা যাচ্ছে, সিকোয়েলের জন্য তিনি বেছেছেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়কে।

Arijit Singh

নতুন দায়িত্বে সিধু

বাংলা ব্যান্ড ‘ক্যাকটাস’-এর অন্যতম লিড সিঙ্গার সিধুর কমিউনিকেশন স্কিলস যে দুর্দান্ত, তা ‘ক্যাকটাস’-এর লাইভ শো দেখলেই বোঝা যায়। এতবছর ধরে শো চলাকালীন, ব্যান্ডের তরফ থেকে দর্শকদের সঙ্গে কথা বলার কাজটা সিধুই সামলান। শুধু তাই নয়, একাধিক স্টেজ শো এবং বিউটি পেজেন্টে সিধুকে সঞ্চালনা করতেও দেখা গিয়েছে। তবে এবার একটি জনপ্রিয় বাংলা প্রাইভেট চ্যানেলে , একটি গানের গেম শো সঞ্চালনা করতে দেখা যাবে সিধুকে। শোয়ের নাম ‘গান ফাইট’। আর মাত্র দু’দিন পরেই শো-টি টেলিভিশনের পরদায় দেখা যাবে। স্বভাবতই এই নতুন দায়িত্ব নিয়ে সিধু বেশ উত্তেজিত। ‘‘প্রত্যেকটি কাজেই একটা নতুন চ্যালেঞ্জ খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করি। এখানেও নিজের সেরাটা দিয়েছি। আশা করি দর্শকদের ভাল লাগবে,’’ জানান সিধু।

আসিফ সালাম

Bangla Band | Cactus | Singer Sidhu

সুরজিৎ ও মোজ়াইক-এর নতুন গান…

music-1.10.2018 কানাডার জনপ্রিয় লোকসঙ্গীত দল ‘মোজ়াইক’-এর সঙ্গে যে সুরজিৎ চট্টোপাধ্যায় এক মঞ্চে পারফর্ম করেছিলেন, সেটা আপনারা আনন্দলোক-এ আগেই পড়েছেন। কানাডার অলমা শহরে ‘টাম টাম ম্যাকাডাম’ নামে একটি বিশ্ব সঙ্গীত উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একসঙ্গে বাজিয়েছিল মোজ়াইক এবং সুরজিৎ চট্টোপাধ্যায়। বাংলার মাটির গান সেদিন মিশেছিল কানাডার মাটির সঙ্গীতের সঙ্গে। যদিও ২৫ বছরের এই পুরনো ব্যান্ডের সঙ্গে সুরজিতের সাঙ্গীতিক সম্পর্ক অনেক দিনের। বেশ কয়েকবছর আগে সুরজিৎ চট্টোপাধ্যায় যৌথভাবে তাদের সঙ্গে একটি কাজ করেছিলেন। ‘ময়না রে’ এবং ‘ভ্রমর’ গানটি ‘মোসাইক’-এর যন্ত্রানুসঙ্গে পেয়েছিল নতুন মাত্রা… এবারও তার ধারা বজায় থাকল। কারণ, আজই প্রকাশিত হতে চলেছে ‘সুরজিৎ ও মোজ়াইক’-এর নতুন ভিডিয়ো ‘নাও ছাড়িয়া দে’। জনপ্রিয় এই গানটি সুরজিতের গলায় অনেকবার শোনা গিয়েছে। কিন্তু মোজ়াইক-এর অ্যারেঞ্জমেন্টে গানটি যে অন্য মাত্রা পাবে, তা বলাই বাহুল্য। তা হলে আর কী, তৈরি হয়ে যান… এক দেশ থেকে অন্য দেশে গানের বহমানতার কথা আমরা অনেক সময়ই বলি। এবার সংস্কৃতি ও ভাষার বিভেদ সত্ত্বেও, সুর মিলিয়ে দিক দুটো দেশকে।

সায়ক বসু

Surojit O Bondhura | Mosaic | Surojit O Mosaic | Naao Chariya de

কালিকাপ্রসাদের জন্মদিনে দোহারের অনু্ষ্ঠান

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

.

............

দোহারের পরিচালনায় সম্প্রতি পি সি চন্দ্র গার্ডেনে অনুষ্ঠিত হল কালিকাপ্রসাদের জন্মদিন উপলক্ষে একটি সাঙ্গীতিক অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানের দু’দিন আগে দোহারের পক্ষ থেকেই আয়োজন করা হয়েছিল কীর্তনের একটি কর্মশালার, যে কর্মশালাটি পরিচালনা করেছিলেন সুমন ভট্টাচার্য। ১১ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ কালিকাপ্রসাদের জন্মদিনে অনুষ্ঠিত হয় কালিকাপ্রসাদেরই পূর্বতন পরিকল্পনা লোকবাদ্যের কনসার্ট লোকধ্বনি, যার পরিবেশনে অংশ নিয়েছিলেন দোহারের সমগ্র সদস্যরা। এই অনুষ্ঠানে বিশেষ প্রাপ্তি ছিল স্টেজের ব্যাকস্ক্রিনেপুরনো অনুষ্ঠানগুলো থেকে সংকলিত এক-একটি গান সম্পর্কিত কালিকাপ্রসাদের বিবৃতি, যেখানে কালিকা না থেকেও যেন সমগ্র অনুষ্ঠানের এক অন্তরালের সূত্রধর হিসাবেই থেকে যান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিল্পী শ্রীকান্ত আচার্য। লোকধ্বনির সূচনা হয় শঙ্খধ্বনির মাধ্যমে, তারপরেই ফোক মিউজ়িক্যাল কনসার্টে বেজে ওঠে চিরায়ত প্রসাদী সুর। অনুষ্ঠানের পরিবেশিত হয়, জারি গান, সারি গান, ঝুমুর এবং সবশেষে ঢাকঢোলে দেবীর আবাহনবন্দনা ও দোহারের জনপ্রিয় আগমনী গান ‘গৌরী এল, দেখে যা লো’। অনুষ্ঠানটির পরবর্তী পর্যায়ে কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা একসঙ্গে কীর্তন গান পরিবেশন করে। অনুষ্ঠানের সর্বশেষ আকর্ষণ ছিল ‘রাধার দুর্জয় মান’ বিষয়ক সুমন ভট্টাচার্যর কীর্তন । পরিবেশনার অনন্যতায় তিনি শ্রোতাদের ফিরিয়ে নিয়ে যান পুরনো কীর্তনগানের আসরের স্মৃতিমেদুরতায়।

Dohar | Kalikaprasad | Folk

ফরহানের প্রথম সিঙ্গল

Farhan-Akhtar-big গানের অ্যালবাম ছেড়ে এই প্রজন্মের গায়ক-গায়িকারা এখন সিঙ্গলসের দিকে ঝুঁকছেন। সেই দলে এবার যোগ দিলেন ফরহান আখতারও। আগামীকালই মুক্তি পেতে চলেছে ফরহানের গাওয়া প্রথম সিঙ্গল। প্লেব্যাক গায়ক-নায়ক-পরিচালক-সঙ্গীত পরিচালক… প্রতিভার জোরে কোনও কিছু করতেই বাকি রাখেননি তিনি। ফলে তাঁর নতুন সিঙ্গলটি নিয়েও ফ্যানদের মধ্যে প্রবল আগ্রহ। দিনদুই আগে ইনস্ট্যাগ্রামে আসন্ন সিঙ্গলটির একটি টিজ়ার প্রকাশ করেন ফরহান। সেখানে ছিল ‘রিয়ারভিউ মিরর’ নামটি। নিজেকে সেখানে ‘নতুন বোতলে পুরনো ওয়াইন’ বলেছেন তিনি! এরপরের দিন গানটির সঙ্গে যুক্ত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেন ফরহান। এখন অপেক্ষা কেবল গানটি মুক্তি পাওয়ার।

Farhan akhtar | new single | first single | rearview mirror | instagram