magazine_cover_12_april_17.jpg

Bolly Interview

আমি কোনও সমালোচনা নিয়ে মাথা ঘামাই না: সোনাক্ষী সিন্হা

sonakshi-sinha-big

‘নাচ বলিয়ে’-এর বিচারক তিনি। আসছে নতুন ছবি ‘নূর’। ছবি থেকে ছোট পরদা, সবকিছু কথা বললেন সোনাক্ষী সিন্‌হা। শুনলেন শ্রাবন্তী চক্রবর্তী

 
 

আগেও ছোট পরদার রিয়ালিটি শোয়ের বিচারক আসনে আপনাকে দেখা গিয়েছে। কিন্তু এই প্রথম কোনও সেলেব্রিটি ডান্স রিয়েলিটি শোয়ের (পড়ুন ‘নাচ বলিয়ে’) সঙ্গে যুক্ত হলেন। কারণটা কী?
ইন্ডিয়ান আইডলের পরেই ঠিক করে নিয়েছিলাম, এমন একটা শোয়ের সঙ্গে যুক্ত হতে হবে, যেটি ইন্ডিয়ান আইডলের চেয়ে কোনও অংশে কম নয়। তা ছাড়া নাচ জিনিসটা আমারও বেশ পছন্দের। বিভিন্ন ডান্স রিয়েলিটি শো দেখি। এইগুলো থেকে অনেক কিছু শেখা যায়। তবে ‘নাচ বলিয়ে’ শুধু ডান্স রিয়েলিটি শো-ই নয়, সেলেব কাপ্‌লরা এতে অংশগ্রহণ করেন। তাঁদের নিজেরা কীভাবে একে অপরকে সাহায্য করেন, তাঁদের মধ্যের কেমিস্ট্রি কেমন, কীভাবে নিজেদের মধ্যে মানিয়ে চলছেন, সেটাও এই শোয়ে দেখা হয়। আর এটাই আমাকে আকর্ষণ করেছিল।

আপনার জীবনে দেখা আর্দশ কাপ্‌ল কে এবং কেন?
অবশ্যই আমার বাবা-মা। তাঁরা জীবনে প্রচুর আপ্‌স অ্যান্ড ডাউন্‌স দেখেছেন, কিন্তু কখনও একে অপরের হাত ছাড়েননি। আমাদের পরিবারের ব্যাকবোন হলেন মা, আমাদের সকলকে ধরে রেখেছেন।

আচ্ছা ‘নাচ বলিয়ে’-এর প্রতিযোগীরাও কিন্তু সেলেব্রিটি। আপনার কী মনে হয় না, এঁদের সামলানো একটু কঠিন। কারণ, অনেক সময়ই এঁরা সমালোচনা নিতে পারেন না?
আমি আমার সিদ্ধান্তের ব্যাপারে খুব অনেস্ট। আর সেই অনেস্টি আমার মুখেই ফুটে ওঠে।তবে আমিও আমার রি-অ্যাকশনটা প্রতিযোগীদের জানানোর সময় খেয়াল রাখব, তাঁরা যেন আঘাত না পান। আমি আগেই বলেছি নাচ আমার পছন্দের। ছোটবেলা থেকেই নাচ শিখেছি। জানেন, ছোটবেলায় কোনও শোয়ে পার্টিসিপেট করতাম, হেরে গেলে খুব কাঁদতাম। আবারও অন্য শোয়ে অংশগ্রহণ করতাম। স্টেজে নাচ করাটা আমার প্যাশন।

sonakshi-sinha-big2

নাচে প্রথাগত শিক্ষা নিয়েছেন?
না, একবার শমক দাভর আর টেরেন্স লুইসের কাছে নাচ শিখব বলে এনরোল করিয়েছিলাম। কিন্তু শেখাটা হয়ে ওঠেনি। তবে বাড়িতে নিজে প্র্যাকটিস করি। নাচ তো আমার এক্সারসাইজ়ের পার্টও বটে।

শুনেছি, আপনার ‘নাচ বলিয়ে’ বিচারক হয়ে আসার সিদ্ধান্তকে অনেকে সমালোচনা করেছেন?
আমি কোনও সমালোচনা নিয়ে মাথা ঘামাই না। এবং কাউকে সেই অধিকারও দিই না। আমি আমার ফিল্মস আর স্টেজ শো ডেডিকেশন দিয়ে করি। অনেকে মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে আমার তুলনা করেন, ওটা আমি কমপ্লিমেন্ট হিসেবেই নিই। উনিও একদিন আমার মতো জুনিয়র ছিলেন। আমি ওখানে ফলো করি বলতে পারেন।

শেষ প্রশ্ন, আপনি কাল্ট ছবি ‘ইত্তেফাক’-এর রিমেকে কাজ করছেন। প্রস্তুতি কেমন নিচ্ছেন?
আমি একেবারেই মেথড অ্যাকটর নই। দরজা-জানলা বন্ধ করে, দুনিয়ার সঙ্গে নিজেকে দূরে রেখে কোনও প্রস্তুতি নিই না। আমি ‘ইত্তেফাক’ দেখিনি। তাই ডিরেক্টর যেমনভাবে কাজ করতে বলবেন, সেভাবে করে যাব। তবে কাজটা পেয়ে আমি ভীষণ উত্তেজিত।