Author Archives: admin

ankush-home

holiday in Puri

সপরিবার পুরী!

কাজের চাপে ছুটি পান না বললেই চলে! তা পেয়েছেন এতদিনে ছুটি, ব্যস চলে গেলেন পুরী…

ankush-small

সপরিবার পুরী!

জের চাপে ছুটি পান না বললেই চলে! তা পেয়েছেন এতদিনে ছুটি, ব্যস চলে গেলেন পুরী। অঙ্কুশের কথা বলছি। বাবা-মা তো আছেনই, পরিবারের বাকিদের নিয়ে সোজা ড্রাইভ করে পৌঁছে গিয়েছেন বাঙালির পছন্দের তীর্থস্থানে।

সপরিবার পুরী!

ankush-bigকাজের চাপে ছুটি পান না বললেই চলে! তা পেয়েছেন এতদিনে ছুটি, ব্যস চলে গেলেন পুরী। অঙ্কুশের কথা বলছি। বাবা-মা তো আছেনই, পরিবারের বাকিদের নিয়ে সোজা ড্রাইভ করে পৌঁছে গিয়েছেন বাঙালির পছন্দের তীর্থস্থানে। ankush-big2 নিজেই ছবি দিয়ে শেয়ার করেছেন সেখানকার গল্প। যেমন, কোনারকের সূর্য মন্দিরের সামনে বাবা-মাকে নিয়ে ছবি তোলার সময় জানিয়েছেন, হনিমুনের পর বাবা-মা এই দ্বিতীয়বার পুরী এসেছেন। তবে ছবিতে অঙ্কুশ মাঝে দাঁড়িয়েছেন, অতএব এবারের মতো ‘কবাব মেঁ হড্ডি’ তিনিই। ও হ্যাঁ ছবিতে তিনি একটি ব্ল্যাক টি-শার্ট পরে আছেন। সেটি যে বন্ধু বিক্রমের দেওয়া সেটাও জানিয়েছেন বইকী।

ANKUSH | PURI |FAMILY | BIKRAM

priya-cinema-small

ফিরছে প্রিয়া সিনেমা হল…

সিনেমাপ্রেমী মানুষদের জন্য সুখবর… ফিরছে প্রিয়া সিনেমা হল। বছরখানেক আগে ভয়াবহ আগুনে পুড়ে গিয়েছিল দক্ষিণ কলকাতার এই ঐতিহ্যবাহী হলটি। মাঝে বহু টানাপড়েন চলেছে, সিনেমাহল আদৌ খুলবে কি না, সেটা ভেবে।

ফিরছে প্রিয়া সিনেমা হল…

priya-cinema-big সিনেমাপ্রেমী মানুষদের জন্য সুখবর… ফিরছে প্রিয়া সিনেমা হল। বছরখানেক আগে ভয়াবহ আগুনে পুড়ে গিয়েছিল দক্ষিণ কলকাতার এই ঐতিহ্যবাহী হলটি। priya-cinema-big2 মাঝে বহু টানাপড়েন চলেছে, সিনেমাহল আদৌ খুলবে কি না, সেটা ভেবে। তবে কিছুক্ষণ আগেই প্রিয়া সিনেমার কতৃপক্ষ জানিয়েছেন, ২১ ফেব্রুয়ারিই সেই দিন, যেদিন সাধারণের জন্য খুলে যাবে হলের দরজা। আর দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে প্রিয়া সিনেমা ঠিক করেছে, সত্যজিৎ রায়ের ‘গুপী গাইন বাঘা বাইন’ দেখাবে। আসলে প্রিয়া ফিল্মসের প্রযোজিত ছবিই ছিল, ‘গুপী-বাঘা’। ফলে এই ছবি দিয়েই শুরু হবে তাদের যাত্রা।

gully-boy-small

গল্লি বয়

এ এমন এক জগৎ, যার সম্পর্কে খুব বেশি মানুষ খুব বেশি কিছু জানেন না। হালফিলে বাদশা, রফতারের জনপ্রিয়তার ফলে হয়তো Rap- এর তালে সকলে তাল মেলান, কিন্তু তাও বলতে হয়, এই জ়ঁরের সঙ্গীত খুব একটা বেশি পরিচিত নয় দেশ।

gully-boy-poster

গল্লি বয়

এ এমন এক জগৎ, যার সম্পর্কে খুব বেশি মানুষ খুব বেশি কিছু জানেন না। হালফিলে বাদশা, রফতারের জনপ্রিয়তার ফলে হয়তো Rap- এর তালে সকলে তাল মেলান, কিন্তু তাও বলতে হয়, এই জ়ঁরের সঙ্গীত খুব একটা বেশি পরিচিত নয় দেশ। ফলে আন্ডারগ্রাউন্ড র‌্যাপারকে নিয়ে ছবি তৈরি করার একটা রিস্ক তো ছিলই।

প্রতিটি আন্ডারডগের গল্প

গল্লি বয়

gully-boy-big

পরিচালনা: জ়োয়া আখতার

অভিনয়ে: রণবীর সিংহ, আলিয়া ভট্ট

এ এমন এক জগৎ, যার সম্পর্কে খুব বেশি মানুষ খুব বেশি কিছু জানেন না। হালফিলে বাদশা, রফতারের জনপ্রিয়তার ফলে হয়তো Rap- এর তালে সকলে তাল মেলান, কিন্তু তাও বলতে হয়, এই জ়ঁরের সঙ্গীত খুব একটা বেশি পরিচিত নয় দেশ। ফলে আন্ডারগ্রাউন্ড র‌্যাপারকে নিয়ে ছবি তৈরি করার একটা রিস্ক তো ছিলই। অথচ জ়োয়া ভীষণ মুন্সিয়ানার সঙ্গে সেই জগতে নিয়ে গেলেন দর্শকদের। মুম্বইয়ের ধারাভি বস্তিতে থাকা মুরাদের সঙ্গে পরিচয় করালেন, তার সংগ্রামে সামিল করলেন, প্রেমে মজালেন, র‌্যাপ সঙ্গীত ছড়িয়ে গেল গোটা সিনেমা জুড়ে, র‌্যাপ-ব্যাটল হল… আর দর্শকরা হল থেকে বেরিয়ে এলেন এক নতুন ধারার সঙ্গীত এবং তার সঙ্গে জড়িয়ে থাকা এক ‘স্লামডগ’-এর জীবন যাপন করে। আসলে ‘গল্লি বয়’-এর মাধ্যমে সেই চিরাচরিত জ়িরো থেকে হিরো হয়ে ওঠার গল্প বলেছেন জ়োয়া। কিন্তু সেই বাঁধা গতের ছাঁচে এনেছেন নতুনত্বের ছোঁওয়া। সেখানে মুম্বইকে যেমন বান্দ্রা, সি লিঙ্কের বাইরেও নতুন করে চেনা আছে, আছে চরিত্রগুলোর নতুন অভিমুখ, এই সমাজের প্রতি ক্ষোভ, আর্থসামাজিক অবস্থা থেকে উঠে আসার চেষ্টা। ফলে মুরাদের বাবা যখন তারই বয়সী একটি মহিলাকে বিয়ে করে বাড়িতে আনে, তার মা প্রতিনিয়ত মার খায়, অর্থনৈতিক অবস্থা তাদের পরিবারকে দারিদ্রের চাপে পিষে দেয়, তখন মনে হয় সত্যিই র‌্যাপকে হাতিয়ার করেই মুরাদের উঠে আসা উচিত। ধারাভির মতো অন্ধ কুঁয়ো থেকে মুখ তুলে দম নেওয়ার চেষ্টায় মুরাদের মেন্টর হয় এম সি শের। সঙ্গে মুরাদের পোজ়েসিভ গার্লফ্রেন্ড সাফিনা তো আছেই… আসলে প্রতিটি চরিত্রকেই ভীষণ মায়া দিয়ে তৈরি করেছেন জ়োয়া। ফলে সাফিনা (আলিয়া) যখন অত্যধিক পোজ়েসিভনেসের জেরে কারও মাথায় বোতল ভাঙে বা এম সি শের (সিদ্ধার্থ) নিজে হেরে গিয়েও মুরাদকে নিয়ে নতুন স্বপ্ন দেখে, তখন মনে হয় এই ছোট্ট ছোট্ট ব‌্যাপারগুলোতেই তো জীবনের নতুন রসদ খুঁজেছেন জ়োয়া। আর অভিনয়ের কথা নতুন করে কিছু বলার নেই। রণবীর, আলিয়া, সিদ্ধার্থ… মনে রেখে দেওয়ার মতো অভিনয় করেছেন। প্রতিটি চরিত্রকে রেখে দিয়েছেন মণিকোঠায়। তুলনায় কলকির ‘স্কাই’ চরিত্রটি যেন কিছুটা আরোপিতই মনে হল। তবে জ়োয়ার এই ছবির নায়ক গান… প্রতিটি দৃশ্যে, প্রতিটি কথোপকথনে গান এবং মুম্বইয়ের অলিগলি নিজেই যেন ‘অভিনেতা’ হয়ে উঠেছে। শুধু অভিযোগ একটাই, এত খেটেখুটেও, কিছু দৃশ্য এবং সংলাপে যেন অতটা সাহসী হয়ে উঠতে পারলেন না জ়োয়া। প্রতিষ্ঠান বিরোধী যে রাগ, যন্ত্রণা থেকে র‌্যাপের সৃষ্টি, তার ছোঁয়া কিছুটা গানগুলোয় আছে। কিন্তু দৃশ্যগুলোও থাকল কই! ‘অপনা টাইম আয়েগা’ বলে তো পুরো ঘটনাটা মুরাদের ব্যক্তিগত হয়েই রয়ে গেল। ফলে তেমনভাবে রাজনীতির কথা বলা হল কই! এমনকী, মুরাদের যাত্রাপথটাও যেন একটু মসৃণই ঠেকল। আসলে একটি সিনেমা থেকে যখন চাহিদা তৈরি হয়, তখন এই মাপেই তৈরি হয়। জ়োয়া তার সদ্ব্যবহারও করেছেন। ‘গল্লি বয়’ প্রতিটি আন্ডারডগের গল্প হোক… তাতে রাজনীতিও থাকুক।

RUKMINI-home

RUKMINI GOT HIGH FEVER

অসুস্থ রুক্মিণী!

কোথায় ভ্যালেন্টাইন্স ডে পালন করবেন, তা নয়, জ্বরে একেবারে কাবু হয়ে পড়েছেন রুক্মিণী মৈত্র।…